ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৯ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১২ জুন ২০১৯, ১৫:৪৭

প্রিন্ট

ভারতে সাংবাদিকের মুখে প্রস্রাব করলো পুলিশ

ভারতে সাংবাদিকের মুখে প্রস্রাব করলো পুলিশ
অনলাইন ডেস্ক

প্রতিদিনের মতোই খবর করতে সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন এক টিভি চ্যানেল সাংবাদিক। খবর সংগ্রহ করার অপরাধে তার ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায় রেলপুলিশ। তারা তাকে মারধোর করেই ক্ষান্ত হয়নি। ওই সাংবাদিকের মুখে পুলিশের এক কর্মকর্তা প্রস্যাব করেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। সাংবাদিকের ওপর এই নির্মম নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে মোদির ভারতে। স্থানীয় এক সঙবাদ মাধ্যম জানায়, মঙ্গলবার রাতে উত্তরপ্রদেশের ধীমানপুরায় একটি মালগাড়ির লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনার খবর সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন নিউজ 24 টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিক অমিত শর্মা। এ সময় রেল পুলিশের একটি দল ওই সাংবাদিকের ওপর চড়াও হয়। তারা তাকে চড়, থাপ্পড়, কিল, ঘুঁষি মারে এবং ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় মাটিতে। হাত থেকে কেড়ে নিয়ে আছড়ে ভেঙে ফেলা হয় তার ভিডিও ক্যামেরাটি। এরপর জামার কলার ধরে হিড়হিড় করে টেনে নিয়ে গিয়ে সেই সাংবাদিককে গারদে ঢুকিয়ে দেয়। সেখানে সারারাত তালাবন্ধ করে রেখে তার ওপর অত্যাচার চালায়।

এ সম্পর্কে সাংবাদিক অমিত বলেন, ‘ওরা সাদা পোশাকে ছিল। আমার ক্যামেরাটিতে আঘাত করে একজন এবং তা নিচে পড়ে যায়। আমি যখন ক্যামেরা তুলতে যাই তখন ওরা আমাকে মারে। আমার পোশাক খুলে দেয়, মুখে মূত্রত্যাগ করে।’

অভিযোগ, ঘটনাস্থলে উপস্থিত রেলের সরকারি পুলিশ কর্মকর্তা অমিত শর্মাকে নির্যাতন ও মারধর করেন। সাংবাদিকের ক্যামেরা ও ফোন ছিনিয়ে নেন তাঁরা।

ঘটনার খবর পেয়েই স্থানীয় আরও কয়েকজন সাংবাদিক পুলিশ স্টেশনে ছুটে যান এবং রেল পুলিশ কর্মকর্তাদের অমিত শর্মাকে মারধোর করার ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে আপলোড করে দেন। সাংবাদিকরা পুলিশ সদর দফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথেও দেখা করেছেন। স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে সাংবাদিকদের বিক্ষোভের পর বুধবার সকালে অমিত শর্মাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে টুইট করার দায়ে সাংবাদিক প্রশান্ত কানোজিয়াকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় মাত্র একদিন আগেই উত্তরপ্রদেশ সরকারকে ভৎর্সনা করেছিলো সুপ্রিম কোর্ট।

সূত্র: এনডিটিভি

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত