ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১৭ আগস্ট ২০১৯, ১৭:৫০

প্রিন্ট

জাকির নায়েকের লেকচার নিষিদ্ধ করলো মালয়েশিয়া

জাকির নায়েকের লেকচার নিষিদ্ধ করলো মালয়েশিয়া
অনলাইন ডেস্ক

মালয়েশিয়ার স্থায়ী নাগরিকত্ব হারাতে চলেছেন ভারতের বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদ ও তুখোড় বক্তা জাকির নায়েক। সম্প্রতি তার কিছু মন্তব্যকে কেন্দ্র করে মালয়েশিয়ায় তাকে নিয়ে বিতর্ক দানা বাধার প্রেক্ষিতে এমন ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

ইতোমধ্যে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ১১৫টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এসব অভিযোগের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে স্থানীয় পুলিশ। তার বিরুদ্ধে আনীত এসব অভিযোগ প্রমাণিত হলে জাকির নায়েকের নাগরিকত্ব বাতিল করা হবে বলে জানা গেছে।

এদিকে মালয়েশিয়ার একটি ইসলামি অনুষ্ঠানে আলোচিত মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ডা. জাকির নায়েকের বক্তৃতায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। হিন্দু সংখ্যালঘু ও চীনা নাগরিকদের নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে নওমুসলিমদের একটি অনুষ্ঠানে তার বক্তৃতার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির পুলিশ।

মালয়েশিয়ার এক শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে আল জাজিরার খবরে বলা হয়, শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের তিন দিনব্যাপী একটি সম্মেলনে জাকির নায়েককে কথা না বলার জন্য পুলিশ সতর্ক করেছে।

পার্লিসে ১৬-১৮ আগস্ট মালয়েশিয়া রিভার্টস ক্যাম্প নামে নওমুসলিমদের এ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হবে। এই অনুষ্ঠানটি মালয়েশিয়ায় ধর্মান্তরিত মুসলিমদের সবচেয়ে বড় সমাবেশ হিসেবে পরিচিত। এতে জাকির নায়েক ও তার ছেলে ফারিক ভাষণ দেয়ার কথা ছিল।

পার্লিসের পুলিশ প্রধান নুর মুশার এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে ১৫০টি অভিযোগ রয়েছে। তিনি পার্লিস আসতে পারবেন কিন্তু বক্তৃতা দিতে পারবেন না। যদি তিনি বক্তৃতা করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ দিকে বিতর্কিত ধর্মীয় আলোচক জাকির নায়েককে মালয়েশিয়া থেকে বের করা এবং স্থায়ীভাবে তাকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছেন দেশটির তিন মন্ত্রী।

বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে তারা এ দাবি জানান। তারা মনে করছেন, নায়েকের বক্তৃতা ঘৃণা উসকে দিতে পারে যা দেশটির নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারে।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার হিন্দু সম্প্রদায় নিয়ে এক মন্তব্য নিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েন জাকির নায়েক। জাকির নায়েকের মন্তব্যটি ছিল-‘ভারতের সংখ্যালঘু মুসলিমদের চেয়ে মালয়েশিয়ার সংখ্যালঘু হিন্দুরা ১০০ গুণ বেশি অধিকার ভোগ করে’।

দেশটির ওই তিন মন্ত্রী জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেছেন, মালয়েশিয়ার মুসলিমদের সঙ্গে অমুসলিমদের দূরত্ব তৈরি করার উদ্দেশে এ মন্তব্য করেছেন নায়েক। তবে জাকির নায়েক তার বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

বুধবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, হিন্দু সংখ্যালঘুদের ওপর মালয়েশিয়া সরকারের ন্যায্য ও ইসলামিক আচরণ নিয়ে আমার মন্তব্য ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। রাজনৈতিক সুবিধা ও সাম্প্রদায়িক বিভাজন ঘটাতেই এমনটি করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

জাকির নায়েক ভারতীয় নাগরিক। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি অর্থ পাচারের সঙ্গে জড়িত এবং জাতিগত বিদ্বেষ ছড়িয়েছেন। তিনি কয়েক বছর ধরে নির্বাসিত জীবন কাটাচ্ছেন। মালয়েশিয়ায় তিন বছর ধরে থাকছেন তিনি।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত