ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৮:৪০

প্রিন্ট

‘একটি মানুষও বাংলা থেকে কোথাও যাবে না’

‘একটি মানুষও বাংলা থেকে কোথাও যাবে না’
কলকাতা প্রতিনিধি

ভারতের জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) নিয়ে ফের একবার কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, বাংলায় কোনোভাবেই এনআরসি বরদাস্ত করা হবে না।

সোমবার পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ির পুলিশ লাইন প্রাঙ্গণে বিজয়া সম্মেলনের অনুষ্ঠান থেকে মমতা জানিয়ে দেন, পশ্চিমবঙ্গে কোনো এনআরসি হবে না।

মমতা এদিন বলেন, ‘একটা জিনিস মনে রাখবেন কোন ভাগাভাগি বাংলার বুকে চলবে না। নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিলের নামে ৬ বছরের জন্য মানুষকে বিদেশি করে দেওয়া হবে। এতে কত লোক মারা যাবে। তারপর ছয় বছর পর কি হবে কে জানে। এটা মাথায় রাখবেন আমরা সকলেই ভারতের নাগরিক। কেউ যেন না ভাবে আমরা নাগরিক, ওরা নাগরিক নয়।’

মমতা এদিন পরিস্কার ভাষায় জানান, ‘আমরা বাংলার মাটিতে বাস করি ,আমরা সবাই বাংলার তথা ভারতের নাগরিক। দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামই আমাদের এই অধিকার দিয়েছে। এই অধিকার দিয়েছেন জাতির জনক মহাত্মা গান্ধী, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু, পণ্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর, বাবা আম্বেদকর, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও নজরুল ইসলামের মতো মনীষীরা। এই অধিকার এমনিতে আসেনি। আমরা সবাই ভোট দেই। ভোটের অধিকার হচ্ছে গণতান্ত্রিক অধিকার। এই অধিকার থাকা মানেই আমরা সকলেই নাগরিক। এনআরসি এখানে করতে দেব না। আপনাদের আমি নিশ্চিন্ত করে দিচ্ছি।’

এদিন বিজেপির দিকে আঙ্গুল তুলে মমতা অভিযোগ করেন, ‘ওরা মুসলিমদের সঙ্গে হিন্দুদের ভাগাভাগি করে দিচ্ছে, কখনো মুসলিমদের সঙ্গে হিন্দি ভাষীদের ভাগ, কখনো হিন্দি ভাষীদের সঙ্গে উর্দু ভাষীদের ভাগ, আবার কখনো ব্রাহ্মণদের সাথে ক্ষত্রিয়দের ভাগাভাগি করে দেওয়া হচ্ছে। কিন্ত আমাদের বাংলার সবচেয়ে বড় পরিচয় হচ্ছে আমরা মানুষ। আমাদের সকলেরই অধিকার আছে। কিন্ত কেউ যদি মনে করে একজন থাকবে আর অন্যজন থাকবে না। তা আমি কখনই হতে দেবো না।’

মমতা আরো বলেন, ‘বাংলা শান্তির বাংলা। আমরা বাংলায় শান্তি চাই। এ বাংলায় আমরা ওসব (এনঅঅরসি) কিছু করতে দেবো না। কোনো প্রশ্নই আসে না। এখানে সব মানুষের থাকার অধিকার আছে। একটি মানুষও বাংলা থেকে কোথাও যাবে না। নিশ্চিন্ত থাকুন। আমি আপনাদের পাহারাদার। এটা মাথায় রাখবেন।’

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত