ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : ৯ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ২১:১৩

প্রিন্ট

রণক্ষেত্র দিল্লি

রণক্ষেত্র দিল্লি
কলকাতা প্রতিনিধি

ভারতের নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে রাজধানী দিল্লিতেও। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে রোববার বিকেলে দক্ষিণ দিল্লিতে সামিল হয় জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। শত শত সমর্থক রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করতে থাকেন। এ সময় রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা বেশ কয়েকটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় আন্দোলনকারীরা। মুহূর্তে শান্ত পরিবেশ হিংসাত্মক চেহারায় হাজির হয়।

আন্দোলনের সময় পুলিশের সঙ্গে বেশ কয়েক জায়গায় সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে। বিক্ষোভকারীদের ওপর লাঠিচার্জ করা হয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, পুলিশের হামলার পরেই গাড়িতে ভাঙচুর চালায় বিক্ষোভকারীরা। পোড়ানো হয় বাস। এ সময় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন পথচারীরা। আন্দোলনকারীদের পিছু হটাতে টিয়ার গ্যাস ছুঁড়তে থাকে পুলিশ। এতে আরো উত্তেজিত হয়ে রাস্তার ধারের গাড়িতে ভাঙচুর চালায় আন্দোলনকারীরা। তিনটি বাসে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে আন্দোলনকারীরা।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে বুঝতে পেরে ওই এলাকায় যানচলাচল বন্ধ করে দেয় দিল্লি ট্রাফিক পুলিশ। দিল্লির ওখরা আন্ডারপাস থেকে সরিতা বিহার রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে দিল্লি মথুরা রোড অবরোধ করেছে আন্দোলকারীরা। বদরপুর এবং আশ্রম চকের দিকে যাওয়ার গাড়ি ঘুরিয়ে দেয়া হচ্ছে।

গত কয়েকদিন ধরে ভারতের উত্তর পূর্ব রাজ্যগুলিতে এই আইনের প্রতিবাদে আন্দোলন চলছে। তার জের এবার এসে পড়ল রাজধানী দিল্লিতেও।

গত তিন দিন ধরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ার পড়ুয়ারা। তবে, আজ বিক্ষোভ প্রসঙ্গে দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, বিক্ষোভ ব্যাপকতা নিয়ে আন্দাজ ছিলো না তাদের। মনে করা হয়েছিল ২০০ থেকে ৩০০ জন মানুষের জমায়েত হতে পারে।

কিন্ত পুলিশের দাবি, কয়েক হাজার মানুষ বিক্ষোভে অংশ নেয়। আর এসব বিক্ষোভকারীরা বিভিন্ন গাড়ি ভাঙচুর শুরু করে। আর এ সময় বাধা দিতে গেলে বাধে সংঘর্ষ।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত