ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, ৪ মাঘ ১৪২৬ অাপডেট : ৪ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৯:০১

প্রিন্ট

সংসদে আইনমন্ত্রী

মামলা জট নিরসনে নতুন ৪১টি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হচ্ছে

মামলা জট নিরসনে নতুন ৪১টি ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হচ্ছে
নিজস্ব প্রতিবেদক

সারা দেশে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এক লাখ ৬৫ হাজার ৫৫০টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি জানান, মামলার এই জট দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য আরো ৪১টি ট্রাইব্যুনাল সৃষ্টির মঞ্জুরি প্রদান করা হয়েছে। আর উক্ত ট্রাইব্যুনালসমূহের জন্য ২০৫টি সহায়ক পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। এসব পদে নিয়োগ দিয়ে মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব হবে।

বুধবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এতথ্য জানান। সরকারী দলের সদস্য দিদারুল আলমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী আরো জানান, ওই সকল মামলার মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৪৪ হাজার ৫৪৬ টি, চট্টগ্রাম বিভাগে ৪৩ হাজার ৩০ টি, রাজশাহী বিভাগে ১৬ হাজার ১২৮ টি, খুলনা বিভাগে ১৯ হাজার ১৩৮ টি, বরিশাল বিভাগে ১০ হাজার ১৬৩ টি, সিলেট বিভাগে ১১ হাজার ৮০৭ টি এবং রংপুর বিভাগে ২০ হাজার ৭৩৮ টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

আওয়ামী লীগের সদস্য মনিরুল ইসলামের প্রশ্নের জবাবে আনিসুল হক জানান, দেশের বিভিন্ন আদালতে জমে থাকা মামলাগুলো নিষ্পত্তির জন্য বিচারকের শুন্য পদ পূরণসহ নতুন পদ সৃষ্টির কার্যক্রম গ্রহন করা হয়েছে। দেশের ৬৪ জেলায় লিগ্যাল এইড অফিস স্থাপণ, সুপ্রিম কোর্টে ডিজিটাল কজলিস্ট চালু, এডিআর এর মাধ্যমে মামলার জট কমানোর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, এ সরকারের আসার পর থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত নিম্ম আদালতে ৬৮৪ জন বিচারক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বিচারকদের দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে অস্ট্রেলিয়ার ওয়েস্টার্ণ সিডনী ইউনির্ভাসিটিতে ৫৪০ জন বিচারককে প্রশিক্ষণের কার্যক্রম চালু রয়েছে এবং ইতিমধ্যে ৬৩ জন প্রশিক্ষণ সমাপ্ত করেছেন। আরো ১৬০ জন বিচারকের প্রশিক্ষণ গ্রহণের সরকারী আদেশ হয়েছে। ভারতের ভুপালে ৭৬ জন বিচারক প্রশিক্ষণ নিয়েছেন এবং জাইকার অর্থায়নে ১৫ জন জাপানে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন।

আইনমন্ত্রী সংসদে জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে আরো ৫টি সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল, ৭টি সাইবার ট্রাইব্যুনাল, ৮টি মানি লন্ডারিং ট্রাইব্যুনাল, ৩টি শ্রম আদালত, ১১২ টি অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত, ১৫৯ টি যুগ্ম-জেলা জজ পদ সৃষ্টি, ১৯ টি পরিবেশ আদালত, ৬টি পরিবেশ আপীল আদালত, ২১৪ টি সহকারী জজ আদালত সৃষ্টির বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এছাড়া সারা দেশে ৩৬০ টি মেট্রোপলিটন ম্যাজিট্রেট, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিট্রেট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিট্রেট ও সহকারী জজ আদালত পদ সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

বিরোধী দল জাতীয় পার্টির গোলাম মোস্তফা বিশ্বাসের প্রশ্নের জবাবে আনিসুল হক জানান, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সারাদেশে ৫শ’টি স্থানে সিরিজ বোমার হামলার ঘটনায় বর্তমানে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ৩০টি। ২৯টি মামলা সাক্ষ্যগ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে। একটি মামলার কার্যক্রম আদালত স্থগিত করেছে।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close
close