ঢাকা, সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৩:৪০

প্রিন্ট

হলি আর্টিজান মামলার আসামির মাথায় আইএসের টুপি!

আদালত চত্বরে আসামির মাথায় আইএসের টুপি!
নিজস্ব প্রতিবেদক

বহুল আলোচিত রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলা মামলায় আট আসামির মধ্যে সাতজনের মৃত্যদণ্ড ও একজনের খালাস দিয়েছেন আদালত। বুধবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

তবে, রায় ঘোষণার সময় এবং আদালত থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৭ আসামির একজন রাকিবুল হাসান রিগানের মাথায় জঙ্গি সংগঠন আইএস’র টুপি দেখা গেছে। যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ইতিমধ্যে সমালোচনা শুরু হয়ে গেছে। যেখানে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে, কিভাবে কারা বেষ্টনীর মধ্যে তার মাথায় এই টুপিটা এলো?

এদিকে প্রিজনভ্যানে ওঠার পরেও আল্লাহু আকবর ধ্বনি দিয়ে এ রায় না মানার কথা বলতে থাকেন আসামিরা। রিগান মাথায় আইএস’র টুপি দিয়ে ‘আল্লাহু আকবর’ বলে চিৎকার করতে থাকেন। তিনি লিফটে ওঠার সময় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সামনেই আইএসের প্রতীক চিহ্নিত কালো টুপি পরেন। এজলাসেও তার মাথায় ছিল এ টুপি।

আসামি হাদিসুর রহমান সাগর প্রিজনভ্যান থেকে বলতে থাকেন, আমরা কিছু করিনি। আমাদের কেন ফাঁসি দেওয়া হলো?

রাশেদ বলেন, আমরা ফাঁসি ভয় পাই না। আমরা খেলাফত যোদ্ধা।

তারা উত্তেজিত হয়ে নানা ধরনের বক্তব্য দিতে থাকেন। সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বিরুদ্ধে নানা ধরনের অকথ্য কথা বলতে থাকেন। সবাই ছিলেন হাস্যোজ্জ্বল। ফাঁসির আদেশ শোনার পরও কারও মধ্যে কোনোরকম ভীতি লক্ষ্য করা যায়নি।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের এমন আস্ফালনে আদালত প্রাঙ্গণে অনেকেই বেশ অবাক হন। তাদের এই চিৎকার চেঁচামেচির মধ্যেই আসামিদের বহনকারী প্রিজনভ্যান আদালত চত্বর ছেড়ে যায়।

এদিকে, রায় ঘোষণার পর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের কাছে রায় নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় সাংবাদিকরা তার কাছে আসামি রিগ্যানের মাথায় টুপির প্রসঙ্গটিও তোলেন। তখন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, রিগ্যানের মাথা আইএসের টুপি কীভাবে এলো সেটা আমি বলতে পারব না। তবে এ বিষয়ে তদন্ত করা দরকার।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত