ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮ আপডেট : কিছুক্ষণ আগে

বেশি বয়সে সন্তান জন্মদানের ভালো দিক

  জীবন-শিল্প ডেস্ক

প্রকাশ : ২১ জুন ২০২১, ১৩:৪৮

বেশি বয়সে সন্তান জন্মদানের ভালো দিক
ছবি সংগৃহীত

জীবন-শিল্প ডেস্ক

অনেকে মনে করেন, বেশি বয়সে মা হওয়াতে নানা জটিলতা থাকে। তাই অনেকেই বিয়ের পর দ্রুত সন্তান নেয়ার চেষ্টা করেন। আবার অনেকে দেরি করে মাতৃত্ব উপভোগ করেন। তবে সব কিছুরই ভালো ও খারাপ দিক রয়েছে। বেশি বয়সে সন্তান নেয়ারও রয়েছে কিছু ভালো দিক।

ডেনমার্কের আর্হাস বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, ৩৫-এর পর যারা মা হচ্ছেন, তারা অনেক ভালোভাবে লালন-পালন করতে পারছেন সন্তানদের। প্রতিটি সন্তান যখন তাদের কৈশোর বয়স পার করে, তখন তাদের মাঝে নানা ধরনের মানসিক ও শারীরিক পরিবর্তন হয়ে থাকে। বেশি বয়সের মায়েরা কিশোর সন্তানদের প্রতি তুলনামূলকভাবে কম কড়া হয়ে থাকেন বলে ধরা পড়েছে এ সমীক্ষায়।

ফলে এমন মায়েদের কাছে মন খুলে কথা বলতে পারে সন্তানরা। এই বয়সের মায়েরা সন্তানদের অনেক ভালো বুঝতে পারেন। আর সন্তানের সুস্থভাবে বড় হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই মায়েরা নিজে ও সন্তানের বিষয়ে বাড়তি সচেতন থাকেন। আর্থিক স্বচ্ছলতা তুলনামূলক বেশি থাকে তাদের। স্বামী ও পরিবারের সঙ্গে ভালো বোঝাপড়াও তৈরি হয়।

পেশাজীবনেও এই মায়েরা অন্যদের তুলনায় কিছুটা এগিয়ে থাকেন। সন্তানের সুরক্ষায় তারা সচেষ্ট থাকেন। বর্তমান বিশ্বে উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা থাকার কারণে বেশি বয়সে মা হওয়া তাই সমস্যা নয় আজকাল। সন্তান জন্মের পর সন্তানের যেমন বাড়তি যত্ন নিতে হবে, তেমনই মায়েরও।

আবার ৩৫ বছর বয়সের পর প্রথম সন্তান নিলে তার যত্ন নেয়ার ক্ষমতা কমে যাবে এমনটিও বলেন অনেকে। এদিক দিয়ে ভাবলে এ সমীক্ষাটিতে যা দেখাচ্ছে, সে কথা সব অর্থে সঠিক নয়।

বাংলাদেশ জার্নাল/এফএম/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত