ঢাকা, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬ অাপডেট : ১০ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:৫৭

প্রিন্ট

এখনো পছন্দের শীর্ষে হুমায়ূন আহমেদ

এখনো পছন্দের শীর্ষে হুমায়ূন আহমেদ
ঢাবি প্রতিনিধি

অমর একুশে গ্রন্থমেলার দশম দিন চলে রোববার বেলা ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বাংলা একাডেমির উপবিভাগের তথ্য মতে, এদিন মেলায় নতুন বই এসেছে ৯০টি।

সরেজমিনে দেখা যায়, হুমায়ূন আহমেদের জনপ্রিয়তা তার মৃত্যুর পর থেমে যায়নি, বরং বেড়েছে বহুগুণে। আর এ জনপ্রিয়তার বহিঃপ্রকাশ বইমেলার অন্যপ্রকাশ স্টলে। অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রথম দিন থেকেই অন্যপ্রকাশে ভিড় ছিল অন্য স্টলের তুলনায় অনেক বেশি। কারণ একটাই, অন্যপ্রকাশে আছেন হুমায়ূন! তার বই।

স্টলের সামনে দাঁড়ালেই মনে হবে দক্ষিণ হাওয়ার বারান্দায় দাঁড়িয়ে হাতছানি দিচ্ছেন তার অগণিত পাঠক-ভক্তকে। তবে তিনি অধরা!

কথা হলে নাঈমা বলেন, হুমায়ূন আহমেদকে আমি সেভাবে পাইনি। তবে তার লেখার বেশ ভক্ত বলতে পারেন। বন্ধুরাসহ শিক্ষকরাও এই লেখকের লেখার অনেক প্রশংসা করেন। আর আমিও তার অল্প কিছু বই পড়েছি। সেখান থেকেই এই লেখকের লেখার প্রতি আগ্রহ ও ভালোবাসা।

অন্যপ্রকাশের স্টলে বিক্রয়কর্মীদের ব্যস্ততাশুধু শিক্ষার্থীরা নয়, এই লেখকে আগ্রহ আছে সব বয়সী মানুষের। আর তার প্রমাণ মেলে অন্যপ্রকাশসহ হুমায়ূন আহমেদের প্রকাশনাগুলোর কাছে গেলেই। পাঠকরা এসব প্রকাশনা থেকে নিচ্ছেন নিজেদের পছন্দের বইটি। তবে তাদের বেশি আগ্রহ হিমু আর মিসির আলী সিরিজে।

বেসরকারি চাকরিজীবী রফিকুল ইসলাম পছন্দ করেন হুমায়ুন আহমেদের মিসির আলি সিরিজ। তিনি বলেন, লেখক তার লেখাগুলোতে একেকটি চরিত্র যেভাবে সৃষ্টি করে গেছেন, তা অন্য লেখক খুব কমই পারেন। হুমায়ূন আহমেদের লেখা পড়তে শুরু করলে কি একটা জাদু ঘটে যায়, সেখান থেকে যেনো আর বেরোনো যায় না।

পাঠকের ভিড় সব সময় লেগেই থাকে অন্যপ্রকাশে। সত্যিই তাই মত্যুর এতগুলো বছর অতিবাহিত হলেও এখনো বইমেলায় তার বই কিনতেই মানুষের আগ্রহ সবচেয়ে বেশি। হুমায়ূন আহমেদ এখনো এদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় লেখক। এখনো তার বইগুলোই সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয় বইমেলায়।

এ প্রসঙ্গে অন্যপ্রকাশের প্রকাশক মাজহারুল ইসলাম বলেন, এবার মেলায় বই বিক্রি ভালো হচ্ছে। আমাদের প্রকাশনী থেকে উপন্যাসের বই সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়। আর অন্য যে কোনো লেখকের চেয়ে হুমায়ূন আহমেদের বইয়ের বিক্রি বরাবরই অনেক বেশি। হুমায়ূন আহমেদের পুরনো বইগুলো এখন ভালো বিক্রি হচ্ছে। যারা আগে পড়েননি তারা এখন কিনে পড়ছেন।

জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদ সর্বশেষ স্বশরীরে বইমেলায় এসেছিলেন ২০১২ সালে। তবে বইমেলায় হুমায়ুন আহমেদ স্বশরীরে উপস্থিত না থাকলেও তার অগণিত ভক্তের হৃদয়ে তিনি বেঁচে থাকবেন অনন্তকাল, এমনটাই আশা এই প্রকাশক এবং লেখকের অগণিত প্রিয় পাঠকের।

মেলার মূল অনুষ্ঠান: এদিন বিকেল ৪:০০টা গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় কথাশিল্পী অমিয়ভূষণ মজুমদার : জন্মশতবর্ষ শ্রদ্ধাঞ্জলি শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মহীবুল আজিজ। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন হোসেনউদ্দীন হোসেন, মাহবুব সদিক এবং হরিশংকর জলদাস। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সেলিনা হোসেন।

লেখক বলছি অনুষ্ঠান: এদিন লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন প্রকাশিত গ্রন্থ বিষয়ে আলোচনায় অংশ নেন কবি অসীম সাহা, রেজাউদ্দীন স্টালিন, মীম নোশিন নাওয়াল খান, মাজহার সরকার এবং পারভেজ হোসেন।

আগামীকালের কর্মসূচি: আগামীকাল ১১ ফেব্রুয়ারি অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১১তম দিন। মেলা চলবে বেলা ৩:০০টা থেকে রাত ৯:০০টা পর্যন্ত। এদিন বিকেল ৪:০০টা গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে নৃত্যাচার্য বুলবুল চৌধুরী: জন্মশতবর্ষ শ্রদ্ধাঞ্জলি শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন অনুপম হায়াৎ। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন আমানুল হক, লুভা নাহিদ চৌধুরী এবং শিবলী মহম্মদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন কামাল লোহানী। সন্ধ্যায় রয়েছে কবিকণ্ঠে কবিতাপাঠ, কবিতা-আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close