ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ আপডেট : ৩৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২২ জানুয়ারি ২০২০, ২০:০৬

প্রিন্ট

ভুয়া কোম্পানি খুলে ১৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ

ভুয়া কোম্পানি খুলে ১৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ
নিজস্ব প্রতিবেদক

মোটা অংকের মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে প্রায় আড়াই হাজার মানুষের কাছ থেকে ১৫ কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় রিয়াজুল ইসলাম রাজুকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি। প্রাইম মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠার খুলে তিনি প্রতারণা করেন। তার বিরুদ্ধে ১৮টি মামলা রয়েছে।

সিআইডির তদন্তে জানা যায় যে, দেশের বিভিন্ন জায়গায় স্থানীয় অসাধু ব্যক্তিদের সহযোগিতায় শাখা অফিস খুলে গ্রাহককে লোভনীয় প্রস্তাব দিতো তারা। বছরে ৩০ শতাংশ লাভে সঞ্চয়পত্র খোলা, ৪ বছরে স্থায়ী আমানতের টাকা দ্বিগুন দেয়ার প্রলোভন দিয়ে ১৫ কোটি টাকা আত্নসাৎ করেছেন তিনি।

বুধবার সিআইডির মিডিয়া বিভাগ থেকে জানানো হয়, সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম ইউনিটের ইকোনমিক ক্রাইম স্কোয়াডের একটি দল গত ৯ জানুয়ারি যশোর কোতোয়ালি থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।

আসামি রাজু তার অপর সহযোগীদের নিয়ে ২০১০ সালে ১৫ জুলাই প্রাইম মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডের সনদ নিয়ে যশোর, সাতক্ষীরা, ফরিদপুর ও কুষ্টিয়াসহ বিভিন্ন এলাকায় সংঘবদ্ধ দলের সদস্যদের সহযোগিতায় ২০১০ সালে জুলাই মাস থেকে ২০১৪ সালের এপ্রিল মাস পর‌্যন্ত প্রতারণার মাধ্যমে এই ১৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নেন।

সিআইডি আসামি রিয়াজুল ইসলাম রাজুর সম্পত্তি অনুসন্ধান চালিয়ে প্রতারণা করে আত্নসাত করা ৫ কোটি টাকার সম্পত্তির সন্ধান পায়। তার ২টি বাড়ি, ২টি কাভার্ড ভ্যানসহ ১০ বিঘা জমির সন্ধান পাওয়া যায়। এছাড়া প্রাইম মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটেডের নামে ২টি গাড়ি ও ৬টি স্থানে জমির সন্ধান পেয়েছে সিআইডি। কুষ্টিয়ার রেহানা এবং আমিরুলের দায়ের করা মামলায় ২ বছরের সাজা প্রাপ্ত হয়ে তিনি ৩ মাস জেল খাটেন তিনি। এরপর থেকে তিনি দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত