ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮ আপডেট : ৫ মিনিট আগে

গান্ধীর অহিংস আন্দোলনে অনুপ্রাণিত ছিলেন মার্টিন লুথার কিং

  জার্নাল ডেস্ক

প্রকাশ : ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১১:০০  
আপডেট :
 ১৫ জানুয়ারি ২০২২, ১২:২৪

গান্ধীর অহিংস আন্দোলনে অনুপ্রাণিত ছিলেন মার্টিন লুথার কিং
ছবি: সংগৃহীত
জার্নাল ডেস্ক

বিখ্যাত আফ্রিকান-আমেরিকান মানবাধিকার কর্মী মার্টিন লুথার কিং-এর জন্ম ১৯২৯ সালের ১৫ জানুয়ারি। জর্জিয়ার আটলান্টায় এই দিনে বাবা মাইকেল কিং সিনিয়র এবং মা আলবার্টা উইলিয়ামস কিং এর ঘরে জন্ম নেন তিনি। তিন ভাই-বোনের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়।

খ্রিস্টীয় ধর্মবিশ্বাস ও মহাত্মা গান্ধীর অহিংস আন্দোলন দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে নাগরিক ও মানবাধিকার আন্দোলন এগিয়ে নিয়ে যান মার্টিন লুথার কিং। আমেরিকায় নাগরিক ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় আন্দোলনের জন্য ১৯৬৪ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কারে ভূষিত হন তিনি।

কিং বুকার টি. ওয়াশিংটন হাই স্কুলে পড়াশোনা করেন এবং ১৯৪৪ সালে ১৫ বছর বয়সে মোরহাউস কলেজ,আটলান্টাতে ভর্তি হন। ১৯৫৫ সালে তিনি বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টর অব ফিলোসোফি ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৬৩ সালে ওয়াশিংটন অভিমুখে পদযাত্রা কর্মসূচিতে তার ঐতিহাসিক ভাষণে শিরোনাম ছিল ‘আই হ্যাভ এ ড্রিম’।

কর্মজীবনের শুরুতে মার্টিন লুথার কিং মানবাধিকার কর্মী ছিলেন, নাগরিক অধিকার রক্ষাই তার উদ্দেশ্য ছিল। মহান এই খ্রিস্টান নেতা ১৯৫৫ সালে মন্টোগমারীতে বাস বয়কটের নেতৃত্ব দেন। প্রথমবার রাষ্ট্রপতি হয়ে ১৯৫৭ সালে তিনি খ্রীষ্টান সম্প্রদায়ের জন্য তহবিল গঠন করেন। ১৯৬২ সালে তিনি আলবেনিয়া ও জর্জিয়াতে ব্যারথ অভিযান চালান। ১৯৬৩ সালে তিনি ওয়াশিংটন মাচ সুসংগঠিত করেন। তিনি একজন সফল বক্তা হিসেবে পরিচিত।

মার্টিন লুথার কিং, জুনিয়র তার খ্রিস্টীয় মতানুসারে অহিংস উপায়ে নাগরিক অধিকার রক্ষায় অবদানের জন্য অধিক জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন। ১৯৬৪ সালের ১৪ অক্টোবর তিনি অহিংস আন্দোলনের জন্য শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

১৯৬৮ সালের ৩ এপ্রিল তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়। এসময় সহকর্মীরা তাকে অন্যত্র চলে যাওয়ার পরামর্শ দিলে অকুতোভয় লুথার কিং তা অগ্রাহ্য করেন। সকলকে হিংসা ত্যাগের আহ্বান জানান। পরদিন ৪ এপ্রিল লরেইন হোটেলের বারান্দায় দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় শ্বেতাঙ্গ উগ্রপন্থী যুবক জেমস আর্ল রে নামক আততায়ীর হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মার্টিন মৃত্যুবরণ করেন। তখন তার বয়স মাত্র ৩৯ বছর।

বাংলাদেশ জার্নাল/পিএল

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত