ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৫ পৌষ ১৪২৫ অাপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৯:২৬

প্রিন্ট

‘শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে সহযোগী হবে ছাত্রলীগ’

‘শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে সহযোগী হবে ছাত্রলীগ’
জোবায়ের আবদুল্লাহ

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার ঐতিহ্যবাহী আওয়ামী পরিবারের সন্তান ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। তার বাবা নুরুন্নবী চৌধুরী ১৯৮১ সালে ভুরুঙ্গামারী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও ১৯৯১ সালে থানা যুবলীগ এর সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২০০১-১০ সাল পর্যন্ত তিনি থানা আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ২০১১ সালে পুনরায় নির্বাচিত হয়ে অদ্যাবধি এ পদেই আছেন। এর পাশাপাশি তিনি নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান। শোভনের দাদা মরহুম শামসুল হক চৌধুরী একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। কুড়িগ্রাম-১ আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্যও ছিলেন (১৯৭৩ ও ১৯৭৯)। তিনি ১৯৭৭ সালে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ২০০১ সালেও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর মনোনীত প্রার্থী হিসেবে জাতীয় নির্বাচন করেন।

ঐতিহ্যবাহী আওয়ামী পরিবারের সন্তান রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ থেকে সদ্য মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন (যে বিভাগে পড়েছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান)। গত ৩১ জুলাই শোভনকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতির দায়িত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর মাধ্যমে ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটিতে নতুন চমক হলো সিন্ডিকেটের বলয় থেকে বের হওয়া। এমনটাই মন্তব্য ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতাদের।

ছাত্রলীগকে নিয়ে ভাবনা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের সাথে কথা হয় বাংলাদেশ জার্নালের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধির।

বাংলাদেশ জার্নাল: ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতৃত্বে আসায় আপনার অনুভূতি সম্পর্কে বলুন।

শোভন: বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ইতিহাস গৌরব, ঐতিহ্য ও সাফল্যের ইতিহাস। ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া সংগঠন। এ সংগঠনের দায়িত্ব পেয়ে আমি সত্যিই ভাগ্যবান। তবে নেতৃত্বে আসায় আনন্দের কিছু নেই, খুশি হওয়ারও কিছু নেই, এটা আসলে দায়িত্ব পালনের বিষয়।

বাংলাদেশ জার্নাল: ছাত্রলীগকে নতুন করে সাজাতে আপনার কোন পরিকল্পনা আছে কিনা?

শোভন: ছাত্রলীগকে ঢেলে সাজানোর কিছু নেই। ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া। যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে, তারাই ছাত্রলীগ করে। আর বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হলো অসহায়, নির্যাতিত মানুষের পাশে দাঁড়ানো। বঙ্গবন্ধু নিজেই ছাত্র আন্দোলন করতে গিয়ে নিজের ছাত্রত্ব হারিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু ছাত্র ও সুবিধা বঞ্চিতদের নিয়েই কাজ করেছেন। আমি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলতে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে সারা বাংলার ছাত্র সমাজকে একত্রিত করার চেষ্টা করবো।

বাংলাদেশ জার্নাল: এর আগে বিভিন্ন সময়ে ছাত্রলীগের মধ্যে অন্তর্কোন্দলসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে ছাত্রলীগ নেতাদের জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এগুলো রোধে আপনি কাজ করবেন কিনা?

শোভন: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ একটি বৃহৎ সংগঠন, এখানে ব্যক্তির দোষ দলের ওপর চাপানো ঠিক না। ব্যক্তির দোষ দলের মধ্যে প্রভাব ফেলবে, এটা ঠিক না। তবুও এ বিষয়ে অনেক বেশি সতর্ক হবো। সতর্ক দৃষ্টিতে চিন্তা-ভাবনা করে ভালো ছেলেদের, ভালো ছাত্রদেরকে পদে আনবো। কোন চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ যাতে ভালো পদে আসতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখবো।

বাংলাদেশ জার্নাল: ছাত্রলীগের কমিটিতে অনুপ্রবেশকারীদের স্থান দেয়া হয় বলে বিভিন্ন সময় অভিযোগ পাওয়া যায়। এসব অনুপ্রবেশ ঠেকাতে আপনার কোন পরিকল্পনা আছে কিনা?

শোভন: অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সতর্ক হবো, আরও বিচার বিশ্লেষণ করবো। কারো কথায় কমিটি না দিয়ে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কাছ থেকে তথ্য নিব। সম্মেলনের এতদিন পরে প্রধানমন্ত্রী কমিটি দিয়েছেন। তার কারণ হলো, আমাদের ৩২৩ জন প্রার্থীকেই যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। তিনি যেহেতু এত যাচাই-বাছাই করে দায়িত্বটা দিয়েছেন, আমরাও যাদেরকে দায়িত্ব দিব, তাদের ক্ষেত্রে বিষয়টি খেয়াল রাখবো। তথ্য নেয়ার জন্য বিভিন্ন উইংস আছে, সেখান থেকে আমরা তথ্য নিব।

বাংলাদেশ জার্নাল: অতীতের শিক্ষার্থীবান্ধব বিভিন্ন আন্দোলনে ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। আপনাদের কমিটি কি ভবিষ্যতের শিক্ষার্থীবান্ধব আন্দোলনে তাদের পাশে থাকবে নাকি বিপক্ষে অবস্থান নিবে?

শোভন: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সবসময় ছাত্রদের প্রতিনিধিত্ব করে, ছাত্রদের অধিকারের কথা চিন্তা করে। শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে ছাত্রলীগ সবসময় তাদের অধিকার আদায়ে সহযোগী হবে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনেও পাশে থাকবে ছাত্রলীগ।

বাংলাদেশ জার্নাল: ছাত্র সংগঠনের দায়িত্ব কি মূল সংগঠনের চাপিয়ে দেয়া দায়িত্ব বাস্তবায়ন করা নাকি একটি ছাত্র সংগঠন হিসেবে নিজেদের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করা?

শোভন: বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আওয়ামী লীগের ভ্রাত্রপ্রতিম সংগঠন। ছাত্রদের কথা নিয়ে আলোচনা করি আমরা। আমাদের কাজ আওয়ামী লীগের যতটুকু, তার চেয়ে বঙ্গবন্ধু আমাদের কাছে বেশি। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির, প্রগতিশীল লোকদের কাজ বাস্তবায়ন করা, প্রগতিশীল লোকদের মনোভাবকে প্রাধান্য দেয়া এগুলো নিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কাজ করবে।

বাংলাদেশ জার্নাল: ডাকসুসহ সকল ছাত্র সংসদ নির্বাচন দেয়ার ক্ষেত্রে ছাত্রলীগের অসহযোগিতার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। সেক্ষেত্রে আপনার বা আপনাদের বর্তমান কমিটির ইতিবাচক কোন দৃষ্টিভঙ্গি থাকবে কিনা?

শোভন: বর্তমানে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি এসব দল শেষ হয়ে গেছে। এখন দুটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে গেছে বাংলাদেশ। একটি প্রগতিশীল, অন্যটি প্রতিক্রিয়াশীল। যারা প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী তারা এতদিন বড় ছাত্রদেরকে উসকে দিয়েছে, এখন তারা ছোট ছোট কোমলমতি ছাত্রদেরকে উসকে দিচ্ছে। আমি সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত হলাম। ছাত্রলীগ ছাত্র সংসদ নির্বাচন দেয়ার ক্ষেত্রে অসহযোগিতা করেছে কিনা আমার জানা নেই। ব্যক্তিগতভাবে আমি বিষয়টি নিয়ে কথা বলবো। এক্ষেত্রে ছাত্রলীগের সহযোগিতা থাকবে।

বাংলাদেশ জার্নাল: ধন্যবাদ।

শোভন: আপনাকে ধন্যবাদ, বাংলাদেশ জার্নালকেও ধন্যবাদ।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close
close