ঢাকা, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ৮ চৈত্র ১৪২৬ অাপডেট : ১১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৯ মার্চ ২০১৯, ১৯:৩৬

প্রিন্ট

‘সাব এডিটরদের ছাড়া সংবাদ পরিবেশন সম্ভব নয়’

‘সাব এডিটরদের ছাড়া সংবাদ পরিবেশন সম্ভব নয়’
অনলাইন ডেস্ক

‘একটি ভুল সংবাদ থেকে সমাজে অনেক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে। বিপরীতে একটি ভালো নিউজের কারণে বদলে যেতে পারে গোটা দেশ ও জাতি।’ আজ শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের মওলানা মোহাম্মদ আকরাম খাঁ হলে সাব এডিটর কাউন্সিলের (ডিএসইসি) অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

সাব এডিটরদের গুরুত্ব বোঝাতে গিয়ে মন্ত্রী আরো বলেন, ‘একজন সাব এডিটর ছাড়া কখনও যথাযথ ও পূর্ণাঙ্গ সংবাদ পরিবেশনা সম্ভব নয়। উন্নত রাষ্ট্রের পাশাপাশি একটি উন্নত জাতি গঠন করাও জরুরি। আর এজন্য দেশবাসীর মধ্যে দেশাত্ববোধ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, সহমর্মিতা, সাম্যবোধ, ভ্রাতৃত্ববোধ ও সাম্প্রদায়িক চেতনা গড়ে তোলা জরুরি। সাব এডিটরা সেই মানবিক বোধ সম্পন্ন জাতি গঠনে বিরাট ভূমিকা রাখতে পারেন।’

এসময় সাব এডিটরসদের অফিস সংক্রান্ত দাবির প্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবে যে ৩১ তলা ভবন তৈরি হতে চলেছে সেখানে এই সংগঠনের জন্য পৃথক অফিসের ব্যবস্থা করা হবে।

সাংবাদিকদের আরো বেশি ইউনিয়নে সংক্রিয় হওয়ার দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি মোল্লা জালাল বলেন, আজকাল সাংবাদিকরা ইউনিয়ন আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে, ইউনিয়ন করলে তাদের চাকরি দেয়া হয় না। তাই বলে দূরে সরে থাকলে হবে না। আপনি বিচ্ছিন্ন থাকলেই দুর্বল হয়ে যাবেন। আপনি যত বেশি দুর্বল হবেন ততই নিশ্চিহ্ণ হয়ে যাবেন। সাংবাদিকদের মূল সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। নইলে কোনো দাবিই আদায় করা সম্ভব হবে না।

বিএফইউজে’র সাবেক মহাসচিব আব্দুল জলিল ভূঁইয়া নিজেকে একজন সাব এডিটর উল্লেখ করে বলেন, ‘আমরা পর্দার আড়ালের সাংবাদিক। সংবাদকে পাঠোপযোগী করেন সাব এডিটরসরা। তারাই সংবাদপত্রের সবচাইতে ‘প্রেস্টিজিয়াস’ অংশ। তারা একটা সংবাদপত্রের প্রাণ। নিউজ ডেস্ক খারাপ হলে পত্রিকা কখনও ভালো হতে পারবে না।’

সাব এডিটরদের অফিস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গণ মাধ্যমের সাব এডিটরসদের কোনো অফিস না থাকাটা লজ্জাষ্কর।’

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সভাপতি আবু জাফর সূর্য তার বক্তব্যের শুরুতে সাব এডিটরদের নিজের ‘শিক্ষক’ হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের কাছে নবম ওয়েজ বোর্ড পুরোপুরি বাস্তবায়নেরও দাবি জানান।

ডিএসইসি’র অভিষেক অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিএফইউজের মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ডিএসইসি’র সাবেক সভাপতি মীর মোস্তাফজ ও কায়কোবাদ মিলন।

ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের সভাপতি জাকির হোসেন ইমনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উইক্রিয়েট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সজিব রশিদ। অভিষেক অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুক্তাদির অনিক।

পরে ডিএসইসি’র নতুন কমিটির সদস্যদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

ক্রেস্ট বিতড়ণ করছেন মন্ত্রী হাছান মাহমুদ

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close