ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর ২০১৯, ১৫:৪৭

প্রিন্ট

রহিমার ভালোবাসায় বেঁচে আছেন শহীদুল (ভিডিও)

রহিমার ভালোবাসায় বেঁচে আছেন শহীদুল (ভিডিও)
হৃদয় আলম

শহীদুল ইসলাম। বয়স ৫৫ ছুঁই ছুঁই। ১০ বছর ধরে পঙ্গু। কোনোভাবে বেঁচে আছেন স্ত্রী রহিমার সহোযোগিতায়। ঘর-বাড়ি বলতে কিছুই নেই শহীদুলের। থাকেন আজীমপুরের এক রাস্তায়। মাঝে মাঝে আশ্রয় নেন এক ঘরের সামনের ফাঁকা জায়গায়। বাড়িটির মালিক নিতান্তই ভালো মানুষ বলে থাকতে দিয়েছেন এই দম্পতিকে।

শহীদুল রাস্তায় ভিক্ষা করেন। আর তার স্ত্রী করেন শহীদুলের সেবা। এভাবেই চলছে তাদের দিনকাল।

শহীদুল যখন আজীমপুর মোড়ে ভিক্ষা করেন তখন অনেকে তাকে দেখে পথ চলতে চলতে থমকে দাঁড়িয়ে যান। কেউ হয়তো সামান্য কিছু সাহায্যও করেন। কারোর দয়া না হলে তাকে দেখার তৃষ্ণা ফুরালে হাঁটা দেন নিজ গন্তব্যে।

কথা হয় শহীদুলের সাথে। তিনি জানালেন তার জীবনগাঁথা। জানালেন সেই সব পুরোনো দিনের সব স্মৃতির কথা।

শহীদুলের বাড়ি ভোলায়। কৃষি কাজ করে ভালোই চলছিলো তার। কিন্তু হঠাৎই টাইফয়েট জ্বরে সব শেষ করে দেয়। পঙ্গু করে ছাড়ে শহীদুলকে। অসুস্থ শহীদুল চিকিৎসার জন্য নিজের ঘর-বাড়ি সব বেঁচেছেন। এখন সহায় সম্পত্তি বলে কিছুই নেই তার। রাস্তায় ভিক্ষা করেন আর যা উপার্জন হয় তা দিয়ে কোনো মতে আধপেটা খেয়ে বেঁচে আছেন।

সকালে শহীদুল আটটা থেকে দশটার মধ্যেই বসে যান সড়কে। ভিক্ষা করেন সারাদিন। রোদ-বৃষ্টি এখন তা গা-সওয়া হয়ে গেছে। রাতে দশটার মধ্যে ফিরে যান আশ্রয় নেয়া সেই বাড়ির সামনে। মাটিতে ছালার চট বিছিয়ে তার ওপরে কাঁথা বিছিয়ে শুয়ে পড়েন। এরপর ভোর হলে আবার ছোটেন আগের দিনের মতোই।

সামনে শীত আসছে। এ সময় কষ্ট বেশি হয় জানিয়ে শহীদুল বলেন, ‘শীতে কেউ কোনো গরম কাপড় দিলে ভালো, না হলে কি যে হইব আল্লাহ জানে।’

মাঝে মাঝে না খেয়েও থাকতে হয় উল্লেখ করে শহীদুল বলেন, প্রতিদিন ভালো যায়না। যেসব দিন বৃষ্টি হয় বা কোনো কারণে মানুষ বেশি বের হয়না সেসব দিনে আমাকে না খেয়েই থাকতে হয়। স্ত্রী মানুষের বাসায় কোনো কাজ পায়না। এই বয়সে কেউ কাজ দিতে চায় না।

শুক্রবার রাতে সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, আজীমপুরে কবরস্থানের সামনের এক ভবনের সামনের ফাঁকা অংশে ঘুমের প্রস্তুতি নিচ্ছেন শহীদুল ও তার স্ত্রী। রাত তখন সাড়ে ১১টা। শহীদুল নিজে তার বিছানা গুছাতে না পারায় তার স্ত্রীই সব কাজ করেন। শহীদুল হামাগুড়ি দিয়ে তার কাঠের গাড়ি থেকে নেমে বিছানায় শুয়ে পড়েন। তার কথা বলতেই কষ্ট হয়। সেখানে সারাদিন কাঁটাতে হয় ভিক্ষা করে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

বাংলাদেশ জার্নাল/কেআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত