ঢাকা, বুধবার, ১২ মে ২০২১, ২৯ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৭ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১০ এপ্রিল ২০২১, ১৮:২৪

প্রিন্ট

করোনায় বিএনপিতে মৃত্যু ৪ শতাধিক, আক্রান্ত ৫ হাজার

করোনায় বিএনপিতে মৃত্যু ৪ শতাধিক, আক্রান্ত ৫ হাজার
ফাইল ছবি

কিরণ শেখ

করোনাভাইরাস মহামারীতে সারাদেশে এখন পর্যন্ত বিএনপির ৪ শতাধিক নেতা-কর্মী আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এ সময়ে দলটির ৫ হাজারেরও বেশী নেতা-কর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। তবে দলটি বলছে, সারাদেশ থেকে এখনও তথ্য সংগ্রহ চলছে। তথ্য সংগ্রহ শেষে আক্রান্তের সঠিক সংখ্যা বলা যাবে। কিন্তু প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, আক্রান্তের সংখ্যা ৭ হাজারেরও বেশী হবে। এর অর্ধেক গত দুই মাসে আক্রান্ত হয়েছেন। বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তরের চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স এবং চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান বাংলাদেশ জার্নালকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর বিএনপির কতজন নেতা-কর্মী সুস্থ হয়েছেন, সে তথ্য এখন পর্যন্ত দলটির কাছে নেই। দলটি বলছে, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর অনেকে সুস্থ হয়েছেন। আবার অনেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আর সারাদেশ থেকে তথ্য পাওয়ার পর সঠিক সংখ্যাটি বলা যাবে।

এ বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সস্ত্রীক ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিদ হোসেন, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ দলের ব্যাপক নেতা-কর্মীরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আর এখন পর্যন্ত সারাদেশে চার শতাধিক নেতা-কর্মী আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গত কয়েকদিন আগের হিসাব অনুযায়ী আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজারের অধিক।

করোনায় চার শতাধিক মৃত্যু

এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে বিএনপির চার শতাধিক নেতা-কর্মীর মারা গেছেন। তবে দলটি বলছে, মৃত্যুর সংখ্যা আরো বেশী হতে পারে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য নেতারা হলেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এম এ হক, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রী টি এম গিয়াস উদ্দিন, সাবেক সংসদ সদস্য আমজাদ হোসেন সরকার ভজে, সাবেক এমপি এ টি এম আলমগীর, কুমিল্লা বিভাগীয় বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল খান, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান, ওলামা দলের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি সদস্য মাওলানা কাসেমী, জাতীয় ট্যাক্সসেস বার সভাপতি অ্যাডভোকেট গফুর মজুমদার, গাজীপুর শ্রীপুর পৌরসভা বিএনপি মেয়র প্রার্থী শহিদুল্লাহ শহীদ,গাইবান্ধা জেলা বিএনপির সহ সভাপতি খন্দকার আহাদ আহমেদ, ঢাকা পল্লবী থানা বিএনপির সহ সভাপতি মো. আনিসুর রহমান, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি লায়ন মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য অ্যাডভোকেট কবির চৌধুরী, শ্রমিক দলের সহ সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক মোল্লা, আমেরিকার বোস্টন বিএনপির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মিতোষ বড়ুয়া প্রমুখ।

জানতে চাইলে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, বিএনপি মহাসচিব (শুক্রবার) সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, চার শতাধিক নেতা-কর্মী আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আর এখন আমরা সারাদেশ থেকে তথ্য গ্রহণ শুরু করেছি। সেই তথ্য অনুযায়ী মৃত্যুর সংখ্যা আরো বাড়বে। এখনো তথ্য সংগ্রহ শেষ হয়নি।

আক্রান্ত ৫ হাজার

করোনায় সারাদেশে বিএনপির ৫ হাজারেরও বেশী নেতা-কর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। তবে দলটি বলছে, এই সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পাবে। আমরা সারাদেশ থেকে তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছি। তথ্য অনুযায়ী প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, আক্রান্তের সংখ্যা ৭ হাজারেরও বেশী হবে।

করোনায় আক্রান্ত উল্লেখযোগ্য বিএনপির নেতারা হলেন: বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বেগম সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমদ আযম খান, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা গাজী মাজহারুল আনোয়ার, খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী-খান সোহেলসহ তার স্ত্রী সন্তান, নির্বাহী কমিটির সদস্য ফয়সাল আলিম।

এছাড়া গাজীপুর মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মনজুরুল করিম রনিসহ তার স্ত্রী ও সন্তান, ড্যাবের সাবেক সভাপতি ডা. এ কে এম আজিজুল হকসহ প্রমুখ নেতা-কর্মীরা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনায় আক্রান্ত বিএনপির নেতাদের বর্তমান অবস্থার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও সেলিমা রহমানের অবস্থা উন্নতির দিকে। আজ সকালে খন্দকার মোশাররফ হোসেন স্যারের সাথে যোগাযোগ হয়েছে। আর ইউনাইটেড হসপিটালের ডাক্তারের মাধ্যমে সেলিমা রহমানের খোঁজ-খবর নিয়েছি। উনি আগের চেয়ে অনেকটা ভালো আছেন।

শায়রুল জানান, গত বুধবার রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রুহুল কবির রিজভীকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছে। সর্বশেষ অবস্থা স্থিতিশীল। আর অক্সিজেন লেভেল আগের মতোই। আজ সকালে রুহুল কবির রিজভীর স্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে।

সারাদেশে বিএনপির নেতা-কর্মীদের আক্রান্তের সংখ্যা জানতে চাইলে সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, আমরা সারাদেশ থেকে তথ্য সংগ্রহ করছি। এটা এখনো শেষ হয়নি। তবে এই সংখ্যা ৭ হাজারেরও বেশী হবে।

বিএনপির নেতা কর্মীদের করোনায় আক্রান্তের প্রসঙ্গে প্রিন্স বলেন, রাজনীতি ও জনগণের পাশে থাকা কারণে এবং এই মহামারীতে জনগণের পাশে গিয়ে আমরা সহযোগিতা করছি। এগুলো করতে গিয়ে বিএনপির নেতা কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছে বলে মনে করছেন তিনি।

কেএস

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত