ঢাকা, সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯ আপডেট : ২১ মিনিট আগে

বায়েজিদের প্রশংসা করার কথা, করছে তিরস্কার: রুমিন ফারহানা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২৮ জুন ২০২২, ২০:০২

বায়েজিদের প্রশংসা করার কথা, করছে তিরস্কার: রুমিন ফারহানা
নিজস্ব প্রতিবেদক

পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খুলে ভাইরাল হওয়া যুবক বায়েজিদ তালহাকে প্রশংসা করা উচিত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। যুক্তি তুলে ধরে তিনি বলেন, কাজের গাফিলতি ধরিয়ে দেয়ার জন্য তাকে অ্যাপ্রিশিয়েট করার কথা ছিল; কিন্তু করছে তিরস্কার।

বিএনপির বিদেশ বিষয়ক কমিটির এ সদস্য বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, চোর ধরে নিজেই চোর হয়ে গেলাম। আমি ভুল ধরিয়ে দিলাম, কোথায় আমার অ্যাপ্রিশিয়েট করবে। কোথায় জোড়াতালি দিয়ে সেতু বানিয়েছে সেটা সমাধান করবে। কেন এমন হলো তার তদন্ত করবে এবং যারা দায়ী ছিল তাদের ব্যবস্থার আওতায় আনবে। সেটা না করে ওই ছেলেকে (বায়েজিদ তালহা) রিমান্ডে নিয়ে যাচ্ছে। তার বাড়ি-ঘর ভেঙে দিয়েছে। হামলা হয়েছে, বাড়িতে গিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়েছে। এগুলো অসভ্য রাষ্ট্রে হয়, কোনো সভ্য রাষ্ট্রে হয় না।

বহুল-প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হয় ২৫ জুন। পরদিন যান চলাচলের জন্যে খুলে দেয়া হয় সেতু। দেশের দীর্ঘতম সেতুটি খুলে দেয়ার প্রথম দিনেই বিভিন্ন বিশৃঙ্খলা দেখা যায়। এর ফাঁকে আলোচিত ভিডিওটি করেন বায়েজিদ।

৩৪ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায়, ওই যুবক সেতুর রেলিংয়ের পাশে দাঁড়িয়ে দুটি বোল্ট খুলছেন। খুলে ফেলা একটি বোল্ট হাতে নিয়ে তিনি বলেন, ‘এই লুজ দেহি, লুজ নাট, আমি একটা ভিডিও করতেছি, দেহ। এই হলো পদ্মা সেতু আমাদের... পদ্মা সেতু। দেখো আমাদের হাজার হাজার কোটি টাকার পদ্মা সেতু। এই নাট খুইলা এহন আমার হাতে।’

এ সময় পাশে থেকে আরেক ব্যক্তি বলেন, ‘ভাইরাল কইরা ফালায়েন না।’ ভিডিওটি বায়েজিদের টিকটক অ্যাকউন্টে আপলোড করার পর ফেসবুকেও সেটি ভাইরাল হয়।

এ ঘটনায় রোববার বিকালে শান্তিনগর এলাকা থেকে তালহাকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। পরে তাকে সিআইডির কার্যালয়ে নিয়ে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তার বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩)/২৫ঘ ধারায় পদ্মা দক্ষিণ থানার একটি মামলা হয়েছে। বিশেষ ক্ষমতা আইনের হওয়া এ মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। মামলাটির তদন্ত করবে সিআইডি। পরে পুলিশ তাকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করলে আদালত ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গতকাল সিআইডির হেডকোয়ার্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ জানান, নাট খুলতে কোনো যন্ত্রাংশ ব্যবহার করা হয়েছে কিনা তার জন্য তদন্ত চলছে। এই ভিডিও ছাড়াও আরও কিছু ভিডিও পুলিশের হাতে আছে। আর এটা তদন্তাধীন বিষয়। প্রাথমিকভাবে তার কাছে ডিভাইস পেয়েছে। মোবাইল জব্দ করেছি। সেতু কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা জানিয়েছে, এভাবে হাত দিয়ে খোলা সম্ভব না। তাহলে সহজেই বোঝা যাচ্ছে এখানে ইন্সট্রুমেন্ট ব্যবহার হয়েছে। আমাদের কাছে অনেক তথ্য আসছে।

এদিকে পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট-বোল্ট খোলার ঘটনায় সেই বায়েজিদ তালহার বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। রোববার বিকালে ১০-১২টি মোটরসাইকেলযোগে ৩০-৪০ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র নিয়ে তার গ্রামের বাড়িতে হামলা করে। এ সময় দুর্বৃত্তরা এলোপাতাড়ি হামলা করে বসতঘর ভাংচুর করে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএইচ/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত