ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ৮ মিনিট আগে
শিরোনাম

ক্ষমতায় আসলে দেশের অর্থনৈতিক মেরামত করবো: মোশাররফ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৬:৪০  
আপডেট :
 ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৬:৫০

ক্ষমতায় আসলে দেশের অর্থনৈতিক মেরামত করবো: মোশাররফ
ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।
নিজস্ব প্রতিবেদক

জনগণ বিএনপিকে ক্ষমতায় পাঠালে আন্তরিকতার সহিত দেশের অর্থনৈতিক মেরামত করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি'র স্থায়ী কমিটির সদস্য ড খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

তিনি বলেন, আমরা আশ্বস্ত করতে চাই যেই গণতন্ত্রের জন্য আন্দোলন করছি, মানুষের অধিকারের জন্য আন্দোলন করছি , অর্থনীতিকে মেরামত করার জন্য আন্দোলন করছি ইনশাল্লাহ জনগণ যদি আমাদের ক্ষমতায় পাঠায় আমরা সেই কাজগুলো আন্তরিকতার সহিত করবো। এদেশকে রক্ষা করবো। জনগণকে রক্ষা করবো। অর্থনীতিকে রক্ষা করবো, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবো।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ রিসার্স সেন্টার আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, আমরা বিশ্বাস করি জনগণ আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বে যে বিএনপি তাকে আগামী দিনের ক্ষমতায় বসাবে।

গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করার পূর্বে উদ্ধার করা জরুরী মন্তব্য করে বিএনপি'র এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করার পূর্বে গণতন্ত্র থাকতে হবে। আজকে দেশে যেই গণতন্ত্র অনুপস্থিত তাকে উদ্ধার করতে হবে। গণতন্ত্র পূর্নুদ্ধারের প্রশ্ন আসলো কেন? আজকে গায়ের জোরে, বিনা ভোটে সরকারে আছে প্রায় ১৪ বছর।'

খন্দকার মোশাররফ বলেন, জনগণ এই সরকারকে চায় না। বিএনপির গত ৮ টি সমাবেশে তারা এই বার্তা দিয়েছে। এবং আমরা ১০ তারিখ আমাদের সমাবেশ থেকে এই সরকারকে বিদায়ের জন্য কর্মসূচি ঘোষণা দিবো। এবং ইনশাআল্লাহ এই দেশের মানুষ রাস্তায় নেমে এই গায়ের জোরের সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামিয়ে, একটা নিরেপক্ষ নির্বাচনকালিন সরকারের অধীনে একটা সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবে।

এসময় আলোচনা সভায় আগামী নির্বাচন নিয়ে বিএনপি'র ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, এই সরকা‌রের অ‌ধি‌নে কেউ নির্বাচ‌নে গে‌লে সেটা আত‌্যাহত‌্যার শা‌মিল হ‌বে। এই সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে পরিবর্তন করতে হলে একটা পক্ষ থাকতে হবে। তা না হলে এই স্বৈরা শাসকের পতন হবে না। আর এদের পতন করতে হলে দরকার গণঅভ্যুত্থান, আন্দোলন আর সেটা এ দেশে হয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে হয়েছে।

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক রাষ্ট্রদূত সিরাজুল ইসলাম, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংষর্ঘ অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষক সাইফুদ্দিন আহমেদ, সাবেক কূটনীতিক সাকিব আলী, এসএওয়াইআরসির চেয়ারম্যান সুমন হক।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএইচ/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত