ঢাকা, বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ২৩ মিনিট আগে
শিরোনাম

নয়াপল্টনে আগে সমস্যা না থাকলে এখন কী হলো: ফখরুল

  আকরাম হোসেন, রাজশাহী থেকে

প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮:৪২  
আপডেট :
 ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮:৪৬

নয়াপল্টনে আগে সমস্যা না থাকলে এখন কী হলো: ফখরুল
রাজশাহীতে বিএনপির গণসমাবেশ। সংগৃহীত ছবি
আকরাম হোসেন, রাজশাহী থেকে

আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নয়াপল্টনেই বরাবর আমরা সমাবেশ করে এসেছি, কোনো দিন তো কোনো সমস্যা হয়নি। আজকে হঠাৎ করে আপনাদের মাথায় সমস্যার কথা আসছে কেন?

শনিবার বিকেলে রাজশাহী নগরীর ঐতিহাসিক মাদরাসা মাঠে সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

আরো পড়ুন: ক্ষমতা হারানোর শঙ্কায় ভুগছে সরকার

ফখরুল বলেন, নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনেই বরাবর আমরা সমাবেশ করে এসেছি, বিভাগীয় সমাবেশ করেছি, জাতীয় সমাবেশ করেছি, খালেদা জিয়াকে নিয়ে অনেক সমাবেশ করেছি। লাখ লাখ মানুষ হয়েছে কোনো দিন তো কোনো সমস্যা হয়নি, আজকে হঠাৎ করে আপনাদের মাথায় সমস্যার কথা আসছে কেন? কারণ আপনারা জানেন আপনারা অনেক খারাপ কাজ করেছেন।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, আমরা আবারো বলছি- তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহাল করতে হবে। অন্যথায় এ দেশে কেনো নির্বাচন হবে না। ওবায়দুল কাদের বলেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। কোন সংবিধান? যেখানে বার বার কাটাছেঁড়া করা হয়েছে নিজের প্রয়োজনে। সেই সংবিধান অনুযায়ী দেশ চলতে পারে না। তারা এই সংবিধানের অনেক পরিবর্তন করেছে। নতুন নতুন আইন করেছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করেছে। যেখানে ফেসবুকে পোস্ট দিলেও উস্কানি হিসেবে আখ্যা দিয়ে গ্রেপ্তার করা হয় এবং জামিন নেই। আমরা তো গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ও সবার অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য যুদ্ধ করেছিলাম। কিন্তু আওয়ামী লীগ সেটা চায় না। তাদের লক্ষ্য যেমন করে পারো বন্দুক-পিস্তল দিয়ে ক্ষমতায় থাকো। আমরা তো তাদের চাকর নই। এই দেশের মালিক জনগণ।

তিনি বলেন, কিছু হলেই আওয়ামী লীগ দুঃস্বপ্ন দেখে মন্তব্য করে ফখরুল বলেন, আরে বিএনপি আইলো, বিএনপি আইলো, তারেক রহমান আইলো, তারেক রহমান আইলো এই হচ্ছে তাদের বর্তমান অবস্থা।

আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আরেকটি ধোয়া তোলাতে শুরু করেছে- সেটা হল কী আবার নাকি জঙ্গি আসছে। জঙ্গি ওরা (আওয়ামী লীগ) তৈরি করে। যখন ওদের দরকার হয়, যে এবার বিএনপিকে ধরতে হবে, বাংলাদশের মানুষকে আটকাতে হবে তখন ওরা জঙ্গি তৈরি করে। আর কী বলে অগ্নিসন্ত্রাস; ওরা নিজেরা নিজেরাই বাস পুড়ায়, নিজেরা নিজেরা ককটেল মারে। এই হচ্ছে আওয়ামী লীগ। পরিষ্কার করে বলছি আমরা কোনো অগ্নিসন্ত্রাস করি না, আওয়ামী লীগ করে বিএনপির ওপর দোষ চাপিয়েছে। এই কথা বলে আবার ওই ধরনের নাটক শুরু করবেন না।

আজকে কয়েকদিন ধরে রাজশাহীতে নেতাকর্মীদের ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে জানিয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, জনগণের টাকায় আপনাদের বেতন হয়, ভাতা হয়, গাড়িতে চড়েন, বাড়ি বানান। এই নিরীহ মানুষগুলোর ওপর নির্যাতন চালাবেন না। এই দেশের মানুষ কোনোদিন অন্যায় সহ্য করেনি, আর করবেও না। পরিষ্কার করে বলছি আপনারা আমাদের প্রতিপক্ষ নন। আপনারা রাষ্ট্রের প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী। আমরা রাষ্ট্রের নাগরিক। আমরা রাষ্ট্রের মালিক, আপনারা নন, আপনারা প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা কর্মচারী, সেবক, আপনাকে জনগণের পক্ষে থাকতে হবে।

ফখরুল বলেন, খুব পরিষ্কার করে বলছি আমাদের এই আন্দোলন বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নয়, আমাদের এই আন্দোলন খালেদা জিয়ার জন্য নয়, আমাদের এই আন্দোলন তারেক রহমানের জন্য নয়, আমাদের এই আন্দোলন দেশের সমস্ত মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলন।

দেশের সার্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরে তিনি বলেন, এই দেশ এখন তলানিতে চলে গেছে, সমস্ত কিছু লুট করে নিয়ে গেছে আওয়ামী লীগ। আমার রিজার্ভ, আমার ব্যাংক, আমার শেয়ার মার্কেট, মেগা প্রজেক্টের নামে মেগা লুট। এমন অবস্থার তৈরি করেছে বর্তমান সংকট থেকে উত্তরণের জন্য ডলার ব্যাবহার করা হবে, সেই ডলারও নেই। থাকবে কোথা থেকে সবইতো লুট করে নিয়ে গেছে, পাচার করে দিয়েছে। গত ১১ বছরে ১৯ লক্ষ কোটি টাকা পাচার হয়েছে বলেন ফখরুল।

সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি এরশাদ আলী ঈশা।

বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, বেগম সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কবির হোসেন, মো. মিজানুর রহমান মিনু, মাহবুবুর রহমান, মো. শাহজাহান মিয়া, হাবিবুর রহমান হাবিব, অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্ণেল এম এ লতিফ খান, যুগ্ম মহাসচিব হারুন অর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, এইচএম ওয়াদুর রহমান চন্দন, তাইফুল ইসলাম টিপু, আমিরুল ইসলাম খান আলিম, মহিলা দলের হেলেন জেরিন খান ও ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএইচ/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত