ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ২২ জুলাই ২০১৯, ১৩:৪৫

প্রিন্ট

ফের সংলাপের আহ্বান ড. কামালের

ফের সংলাপের আহ্বান ড. কামালের
নিজস্ব প্রতিবেদক

বন্যা সমস্যা সমাধানে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে নিয়ে জাতীয় সংলাপ ডাকতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

'বানবাসি মানুষের পাশে দাঁড়ান' শীর্ষক জাতীয় প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে গণফোরাম।

এক প্রশ্নের জবাবে কামাল হোসেন বলেন, ‘অবশ্যই, অবশ্যই, অবশ্যই। বন্যা কেনো হয়, কিভাবে হয় এবং এ থেকে বাঁচার জন্য কি কি করা দরকার, সেই জন্য অবশ্যই একটি জাতীয় সংলাপ অপরিহার্য বলে আমি মনে করি। এ ব্যাপারে একটা জাতীয় সংলাপ হোক।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে কোন সঙ্কট আছে কি- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘জাতীয় ঐক্য নির্বাচনকে সামনে রেখে করা হয়েছিল। আর এ বিষয়ে ঐক্যফ্রন্ট নয়, আসল ঐক্য দরকার- জনগণের ঐক্য করা দরকার। এটাকে আমি বেশি গুরুত্ব দিতে চাই।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এই শীর্ষ নেতা বলেন, ‘ঐক্য তো নির্বাচনকে সামনে রেখে করা হয়েছে। আর ঐক্য তো একটা মূল লক্ষ্যকে সামনে রেখে করা হয়। সেই লক্ষ্য তো আমাদের থাকবে। আর জাতীয় ঐক্য তো থাকবেই। তবে মূল চ্যালেঞ্জগুলো নিয়ে আরও গুরুত্বভাবে আমাদের ঐক্য করতে হবে। নির্বাচনের জন্য তো কিছু দলকে নিয়ে ঐক্য করা হয়। আর আমি বলেছি, জাতীয় ঐক্য- সেটা সবাইকে নিয়ে।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ ধরণের সময়ে আমরা মনে করি, সবাইকে নিয়ে বসা দরকার। এজন্য দেশের লোকজন এবং দলমত নির্বিশেষে সবাই এক সাথে নিয়ে বসে তথ্য সংগ্রহ করে সেগুলো মূল্যায়ন করা।’

ড. কামাল বলেন, ‘আমাদের দোষারোপ থেকে বের হয়ে এসে চিহ্নিত করতে হবে যে, কোথায় ঘাটতি হয়েছে- নীতি নির্ধারনীতে ঘাটতি, না কি লোকাল আমলাদের ঘাটতি হয়েছে। সুতরাং রোষারোপ করা বাদ দেই।’

তিনি বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র ঠিক মতো চললে সকল মানুষকে অংশগ্রহণ করানো সম্ভব। আর বন্যা থেকে মানুষকে বাঁচানোর জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে আমরা সব কিছু করবো। এজন্য জাতীয় ঐক্য ও সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধের মধ্যে দিয়ে এগুলো আমাদেরকে চিহ্নিত করতে হবে। এজন্য দেশে ঐক্যমত সৃষ্টি করতে হবে।’

দেশে কার্যকর গণতন্ত্র নাই বলেও মন্তব্য করে কামাল হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে আবু সাঈদ, সুব্রুত চৌধুরী, জগলুল হায়দায় আফ্রিক, মোহাম্মদ আজাদ হোসেন, লতিফু্রর বারি হামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেএস/ওয়াইএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত