ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ অাপডেট : কিছুক্ষণ আগে English

প্রকাশ : ১৪ মে ২০১৯, ২১:৩৪

প্রিন্ট

‘নাটক বাদ দিন, আপনাদের নাটক কেউ দেখতে চায় না’

‘নাটক বাদ দিন, আপনাদের নাটক কেউ দেখতে চায় না’
জার্নাল ডেস্ক

ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা নিয়ে মধুর ক্যান্টিনে সংগঠনটির দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত গঠিত কমিটিকে ‘নাটক’ বলে আখ্যা দিয়েছেন হামলায় আহত রোকেয়া হল শাখার সভাপতি বিএম লিপি আক্তার।

সোমবারের হামলায় আহত বিএম লিপি আক্তার নামে ওই নারী নেত্রী ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেছেন, হামলা করল কারা, আর তদন্ত করবে কারা। ‘তদন্ত নাটক’ বাদ দিয়ে এই কমিটি বাতিল ঘোষণা করে রাজপথের লড়াকু নেতাদের নিয়ে কমিটি গঠন করতে তিনি ছাত্রলীগ সভাপতি ও সম্পাদককে আহ্বান জানান।

ওই তদন্ত কমিটি প্রত্যাখ্যান করে মঙ্গলবার নিজের ফেসবুকে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন ওই নেত্রী।

লিপির স্ট্যাটাসটি হুবহু পাঠকদের উদ্দেশে তুলে ধরা হল- ‘নাটক বাদ দিন, আপনাদের নাটক কেউ দেখতে চায় না। মারল কারা আর তদন্ত করবে কারা? মারার নির্দেশ দিছে কারা, তদন্তের নির্দেশ দিছে কারা? ভণ্ডামি বাদ দিয়ে, যারা বিগত ৮-৯ মাস আপনাদের চামচামি করছে, যাদের কেউ চিনে না, জীবনের প্রথম পোস্ট তাও আবার Join secretary (যুগ্ম সম্পাদক), Vice President (সহসভাপতি), OS (সাংগঠনিক সম্পাদক) এবং সম্পাদক দিছেন এই কমিটি ভেঙে যোগ্য, সাংগঠনিক দক্ষ লোক যারা বিগত দিনে রাজপথে ছিল, তাদের দিয়ে কমিটি করুন।’

লিপি ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে হুশিয়ারি দিয়ে লিখেন, ‘নয়তো খুব খারাপ সময় পার করতে হবে আপনাদের।’ সোমবার দুপুরের দিকে কমিটির তালিকা নিয়ে গণভবনে যান ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। তারা ৩০১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটির সদস্যদের সম্পর্কে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করেন।

আরেক পোস্টে তিনি লিখেছেন, ডাকসু নির্বাচনের আগে হল সভাপতি সাধারণ সম্পাদক নিয়ে দফায় দফায় মিটিং করলেন।কি ওয়াদা দিয়েছিলেন মনে আছে? নানক ভাই, রহমান ভাই, নাছিম ভাই বার বার করে বলেছিলেন কেন্দীয় কমিটিতে হলের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকদের ভালো জায়গায় রাখা হবে, কেউ বাদ পরবে না।সর্বশেষ মিটিং হয় ডাকসু নির্বাচনের রাতে বুয়েট অডিটোরিয়মে। কি বলেছিলেন শোভন রাব্বানী ভাই মনে আছে? আমাদের ভুল হয়েছে তোদের সবাইকে কমিটিতে ভালো জায়গায় রাখব। এমন রাখাই রাখলেন ১৫ জনের নামই নাই আর ৭ জনকে উপ সম্পাদক দিয়ে করলেন অপমান।এমন নাটকের মানে কি?মানবতার ফেরিওয়ালা Golam Rabbani ভাই মনে আছে বঙ্গবন্ধুর নামে বুকে হাত দিয়ে কসম কেটেছিলেন কেউ বাদ পরবে না। কিন্তু, ছিঃ ফেরিওয়ালা ভাই।সারাদিন তো আপাকে বিক্রি করেন ভালো কথা, কিন্ত বঙ্গবন্ধুকেই রেহাই দিলেন না।সেদিনের এই কথার সাক্ষি কিন্তু হাজার নেতা কর্মী। এখন কি বলবেন আপনারা?ও আমরা সিন্ডিকেটের লোক আমরা অমুকের ম্যান তমুকের ম্যান। আপনারা যে সদস্য সম্পাদক ছিলেন সেই পদ কে দিছিলেন? আপনারা তাহলে কি?এত দিন ক্যাম্পাস পাহারা দিলাম, মিটিং মিছিল করলাম আন্দোলন সংগ্রাম করলাম আর পদ দিলেন বিবাহিত,চাকরিজীবি, অছাত্রদের দিয়ে। আমাদের অপরাধ কি???

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত
close
close