ঢাকা, রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : ৯ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১১ মে ২০২০, ১৫:৫১

প্রিন্ট

মিয়ানমারে রমরমা চুলের ব্যবসা

মিয়ানমারে রমরমা চুলের ব্যবসা
প্রতীকী ছবি
ফিচার ডেস্ক

উন্নত বিশ্বে মানুষের চুল দিয়ে তৈরি উইগ বা পরচুলা ও এক্সটেনশনের দাম চড়া। মিয়ানমার চুল রপ্তানিতে বেশ সমৃদ্ধশালী। এখানকার সংগ্রহ হওয়া চুলের বেশিরভাগ চলে যায় চীনে৷ সেখানে এসব চুল পরচুলা ও এক্সটেনশনে পরিণত হয়।

সম্প্রতি এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে ২০১০ সাল থেকে মিয়ানমারে চুলের ব্যবসা বেড়েছে প্রায় চারগুন৷ জাতিসংঘের হিসেবে, বিশ্বে চুল রপ্তানিতে মিয়ানমারের অবস্থান চতুর্থ৷ ২০১৭ সালে চুল রপ্তানি থেকে মিয়ানমারের আয় ছিল প্রায় ৬ দশমিক ২ মিলিয়ন ডলার৷

চুল ব্যবসাকে ঘিরে মিয়ানমারে বেশ কিছু কোম্পানিও গড়ে উঠেছে৷ সেখানে হাজার হাজার মানুষের কাজের ব্যবস্থা হয়েছে৷ তারা চুল সংগ্রহ থেকে শুরু করে ধোয়া, রং করা, প্যাকেটজাত করা ইত্যাদি নানান কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকেন৷

কৃষ্ণাঙ্গদের প্রিয়

চুল ব্যবসায়ী মিন জ ও এক দশকেরও বেশি সময় ধরে এ কাজে জড়িত আছেন৷ তিনি জানান, ব্রিটেন, নাইজেরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও যুক্তরাষ্ট্রের কৃষ্ণাঙ্গদের কাছে তিনি সবচেয়ে বেশি চুল বিক্রি করেন৷ ‘এগুলো আমাদের বাজার: কৃষ্ণাঙ্গ নারীরা,’ বলেন তিনি৷

আরেক চুল ব্যবসায়ী উইন কো জানালেন, বিশ্বে মিয়ানমারের মানুষের চুলের অনেক কদর৷ কারণ, যখন আপনি শ্যাম্পু আর কন্ডিশন করেন, তখন এটা মুক্তার মতো উজ্জ্বল দেখায়!

নববর্ষে সংগ্রহ বেশি

ব্যবসায়ীরা বলছেন, এপ্রিল মাসে যখন মিয়ানমারে নববর্ষ উদযাপিত হয়, তখন সবচেয়ে বেশি চুল সংগৃহীত হয়৷ কারণ, তখন অনেক মেয়ে সন্ন্যাসিনী হওয়ার প্রস্তুতি নেয়ায় চুল বিক্রি করে দেয়৷ সূত্র: ডয়চে ভেলে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত