ঢাকা, শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৯ কার্তিক ১৪২৭ আপডেট : ১৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০১ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩৪

প্রিন্ট

শাহরুখকে জয় উপহার দিলো কেকেআর

শাহরুখকে জয় উপহার দিলো কেকেআর
স্পোর্টস ডেস্ক

টানা দুটি জয়ে শীর্ষস্থান দখল করা রাজস্থান রয়্যালসকে তিনে নামালো কলকাতা নাইট রাইডার্স। বোলারদের নৈপুণ্য বুধবার আইপিএলে ৩৭ রানে জিতেছে তারা।

দুবাইয়ে দলের প্রথম ম্যাচ দেখতে ছুটে গেলেন শাহরুখ খান। এদিন দুবাই ক্রিকেট স্টেডিয়ামের স্ট্যান্ডে শুরু থেকেই ছিল কিং খানের উপস্থিতি। স্ত্রী গৌরী খান এবং পুত্র আরিয়ানকে সঙ্গে নিয়ে নাইটদের তাতাতে পৌঁছে গিয়েছিলেন বলিউডের বাদশা। ম্যাচ শুরুর আগে কেকেআর ফ্র্যাঞ্চাইজির তরফ থেকে একটি ফেসবুক লাইভ করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ফ্র্যাঞ্চাইজি সিইও ভেঙ্কি মাইসোর। শাহরুখ যে দলের ম্যাচ দেখতে দুবাই স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকছেন, সেকথা জানিয়েছিলেন তিনি।

কিং খানের উপস্থিতি যেন অ্যাডিনালিনের কাজ করছিল নাইটদের৷ বিশেষ করে ফিল্ডিংয়ের সময় রয়্যালস ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরেছিল শাহরুখের উপস্থিতি তারই প্রমাণ করে৷ ‘রয়্যালস বধ’ করে কিং খান-কে দুর্দান্ত জয় উপহার দেয় নাইটরা৷ ১৭৫ রান তাড়া করতে নেমে ৯ উইকেটে ১৩৭ রানে থেমে যায় রাজস্থান ইনিংস৷ মরু শহরে শাহরুখের উপস্থিতি আর এক মরু শহরের দলকে হেলায় হারাল কেকেআর৷

লম্বা চুলে রোদচশমা চোখে শাহরুখের পরনে এদিন ছিল নাইট রাইডার্সের লোগো দেওয়া একটি আপার। মাথায় পার্পল রংয়ের বিনি ক্যাপ। আরিয়ানের পরনে ছিল পার্পল রংয়ের নাইটদের লোগো দেওয়া ফুল স্লিভ টি-শার্ট।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ধীরলয়ে করলেও স্কোরবোর্ডে যথেষ্ট রান তুলেছিল দলটি। ৬ উইকেটে করে ১৭৪ রান। লক্ষ্যে নেমে রাজস্থান কলকাতা বোলারদের কাছে নাকানিচুবানি খেয়েছে। ৯ উইকেটে ১৩৭ রানে থামে দলটি।

শুভমান গিল কলকাতার হয়ে ৪৭ রানের সেরা ইনিংস খেলেন। তবে তার ব্যাটে গতি ছিল না। তার ৩৪ বলের ইনিংসে ছিল ৫ চার ও ১ ছয়। তিনি ছাড়া টপ অর্ডারে আন্দ্রে রাসেল দারুণ অবদান রাখেন। তার ২৪ রানের ইনিংসে ছিল ৩ ছয়। শেষদিকে এউইন মরগানের ৩৪ রান স্কোর লড়াই করার পুঁজি এনে দেয়।

রাজস্থানের হয়ে বল করা সাতজনের মধ্যে সর্বাধিক ২ উইকেট নেন জোফরা আর্চার।

লক্ষ্যে নামা রাজস্থান দাঁড়াতেই পারেনি শিভম মাভি, কমলেশ নাগরকোটি ও বরুণ চক্রবর্তীর সামনে। তিনজনই সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট নেন। নাগরকোটি তার প্রথম ওভারেই রবিন উথাপ্পা ও রায়ান পরাগকে ফেরান। ৪২ রানে ৫ উইকেট হারায় রাজস্থান।

কেবল টম কারান ব্যাটিংয়ে প্রতিরোধ গড়েন। ম্যাচের সর্বোচ্চ ইনিংস খেললেও ব্যর্থ তার দল। এই ইংলিশ ব্যাটসম্যান ৫৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। এছাড়া কেবল জস বাটলার (২১) ও রাহুল তেবাতিয়ার (১৪) ইনিংস দুই অংকে পৌঁছায়।

ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন মাভি। ৪ ওভারে সবচেয়ে কম ২০ রান দেন তিনি, পেয়েছেন বাটলার ও সাঞ্জু স্যামসনের উইকেট।

এই জয়ে তিন ম্যাচ খেলে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে উঠেছে কলকাতা। সমান পয়েন্টে তৃতীয় রাজস্থান। নেট রানরেটে এগিয়ে থাকায় একই পয়েন্ট নিয়েও শীর্ষে উঠে গেছে দিল্লি ক্যাপিটালস।

বাংলাদেশ জার্নাল/টিআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত