ঢাকা, বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ আপডেট : ১৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৯ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৪৩

প্রিন্ট

বায়োপিক বিতর্কে কিংবদন্তী বোলার মুরালিধরন

বায়োপিক বিতর্কে কিংবদন্তী বোলার মুরালিধরন
স্পোর্টস ডেস্ক

ক্রিকেটারদের জীবন নিয়ে বায়োপিক তৈরি ভারতে নতুন নয়। মোহাম্মদ আজাহারউদ্দিন এবং এম এস ধোনিকে নিতে ইতোমধ্যেই তৈরি হয়েছে বায়োপিক। তবে এবার শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তী স্পিনার মুরালিধরনের বায়োপিক ঘিরে ভারতে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

ইতোমধ্যে মুরালির বায়োপিক নিয়ে ছবি '৮০০'-এর ফাস্টলুক প্রকাশ পেয়েছে। তার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন 'মাক্কাল সেলভান' খ্যাত তামিল সুপারস্টার বিজয় সেতুপথি। গত ১৩ অক্টোবর এই ছবির পোস্টার প্রকাশ পেলেই শুরু হইয়ে যায় বিতর্ক। ছবিটিতে নাকি দেখানো হয়েছে, শ্রীলঙ্কার সংখ্যালঘু তামিলদের উপর অত্যাচারে সমর্থন ছিল কিংবদন্তী এই স্পিনারের। তাতেই '৮০০' ছবিটির বয়কটের দাবি উঠেছে। অন্যদিকে ইউটিউব থেকেও নামিয়ে নাওয়া হয়েছে সিনেমার ট্রেইলার। আর এই ছবিতে মুরালির ভূমিকায় অভিনয় করা বিজয়কে নিয়েও সমালোচনার ঝড় শুরু হয়েছে। অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে 'শেম অন বিজয় সেতুপথি #' ব্যবহার করছেন।

ঘটনার তীব্র নিন্দা করে মুরালিধরন বলেছেন, 'আমি এক যুদ্ধাকালীন পরিস্থিতিতে বড় হয়েছি। যুদ্ধের পরে যে ভয়াভয়তা ও বেদনা সৃষ্টি হয়েছিল সেটাই আমি সকলের সঙ্গে ভাগ করতে চাই। আমার শ্রীলঙ্কায় ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে যুদ্ধের মধ্যে থেকেছি। কীভাবে আমি ক্রিকেট দলে যোগ দিতে পেরেছি এবং ওই পরিস্থিতি থেকে নিজেরা কীভাবে সাফল্যের স্বাদ পেয়েছি, সেই গল্পটাই বলা হচ্ছে '৮০০' তে। শ্রীলঙ্কায় জন্মেছি বলে কী আমি আমার জীবনের গল্প তুলে ধরতে পারব না।'

তিনি আরও বলেন, '২০১৯ সালে আমি বলেছিলাম যে ২০০৯ সালটি আমার জীবনের সবচেয়ে সুখের বছর ছিল। কিন্তু লোকেরা মনে করে ওই বছরটি আমাদের দেশ তামিলিয়ানদের হত্যা করা নিয়ে যে খবর ছড়িয়েছিল, সেই ঘটনার সমর্থনে ঐ বছরটি আমি সুখের বলেছি।'

এই কিংবদন্তী স্পিনার আরও ব্যাখ্যা করে বলেন, 'একটি সাধারণ মানুষের দৃষ্টিকোন থেকে চিন্তা করে দেখুন। যুদ্ধাকালীন সময়ে আমি বড় হয়েছি, অনেক কষ্টে আমি সাফল্য অর্জন করেছি। এমনও হয়েছে স্কুলে গিয়ে আমি খোঁজ নিতাম, যারা আমার সঙ্গে গতকালও গল্প করেছিল, তারা বেঁচে আছে কিনা। এমন এক বিদ্বেষের মধ্যে বড় হয়েছি।'

অন্যদিকে তামিলনাডুতে এ আই এডি এম কে সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি এই ছবিটি বয়কটের জন্য রাস্তায় পর্যন্ত নেমেছে। তাদের দাবি, মুরালিধরন তামিলদের সঙ্গে ছিলেন না, তিনি সেইসময় শ্রীলঙ্কার শাসকশ্রেণীকে সমর্থন করেছিলে।

বাংলাদেশ জার্নাল/টিআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত