ঢাকা, সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ আপডেট : ৭ মিনিট আগে

চেন্নাইয়ের কাছে শিরোপা হারালো সাকিবের কলকাতা

  স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ : ১৫ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৫৪  
আপডেট :
 ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০০:৫২

চেন্নাইয়ের কাছে শিরোপা হারালো সাকিবের কলকাতা
ছবি: সংগৃহীত
স্পোর্টস ডেস্ক

আইপিএলের ১৪তম আসরের ফাইনাল ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে শিরোপা হারালো কলকাতা নাইট রাইডার্স। দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ধোনিদের কাছে ২৭ রানে হেরে গেল ইয়ন মরগানের নেতৃত্বাধীন সাকিবের কলকাতা। ফলে তৃতীয়বারের মতো শিরোপা জয়ের স্বাদ থেকে বঞ্চিত হলো বলিউড কিং শাহরুখ খানের মালিকানাধীন কলকাতা। অন্যদিকে ধোনির চেন্নাই চতুর্থবারের মতো আইপিএলের শিরোপা জয় করলো।

ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে চেন্নাই সুপার কিংসকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় কলকাতা। ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৯২ রান করে চেন্নাই সুপার কিংস। ১৯৩ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে শুরুতে দুর্দান্ত ব্যাটিং করলেও নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রানেই থেমে যায় কলকাতার ইনিংস। ফলে ২৭ রানের জয় পায় চেন্নাই।

ম্যাচের শুরুতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করে চেন্নাই। তবে দলীয় ৬১ রানে উদ্ভোধোনি জুটি ভাঙ্গেন সুনীল নারিন। তার শিকার রুতুরাজ। নারিনের বলে শিবম মাভির হাতে ক্যাচ দিয়ে সজঘরে ফিরেন রুতুরাজ। আউট হওয়ার আগে এই ব্যাটার করেন ২৭ বলে ৩২ রান। দলীয় ১২৪ রানে উথাপ্পার ঝড়ো ব্যাটিং থামান সেই নারিনই। এলবিডাব্লিউ হয়ে আউট হয় রবিন উথাপ্পা। আউট হওয়ার আগে তিনি করেন ১৫ বলে ৩১ রান।

এরপর ক্রিজে নতুন ব্যাটসম্যান হিসাবে আসেন মঈন আলী। ক্রিজে নেমে তিনিও ছিলেন বিস্ফোরক। ইংলিশ ব্যাটসম্যান ২০ বলে ২ চার ও ৩ ছয়ে ৩৭ রানে অপরাজিত ছিলেন। ডু প্লেসি থেমেছেন শেষ বলে। ৫৯ বলে ৭ চার ও ৩ ছয়ে ৮৬ রানে আউট হন ভেঙ্কটেশ আইয়ারের ক্যাচ হয়ে। উইকেটটি নেন মাভি।

সাকিব ৩ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য। তবে সবচেয়ে বেশি খরুচে ছিলেন ফার্গুসন, ৪ ওভারে ৫৬ রান দেন নিউ জিল্যান্ডপেসার। নারিন ৪ ওভারে ২৬ রান খরচায় নেন ২ উইকেট।

১৯৩ রানের বড় লক্ষ্যে খেলতে নেমে সূচনাটা অসাধারণ হয় কলকাতার। দলের দুই ওপেনার শুভমন গিল ও ভেঙ্কাটেশ আইয়ার ১০.৪ ওভারে ৯১ রান তুলে ভালোই জবাব দিচ্ছিলেন। তবে ফিফটি করা আইয়ার শার্দুল ঠাকুরের বলে রবীন্দ্র জাদেজাকে ক্যাচ দিয়ে ফেরার পরই ব্যাটিং ধস নামে কলকাতা শিবিরে। আইয়ার ৩২ বলে ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৫০ রান করেন।

চেন্নাই বোলারদের ঘুরে দাঁড়ানোর পর দলীয় ১৭ রানেই ৪ উইকেট হারায় কলকাতা। আরেক ওপেনার গিল দীপক চাহারের বলে এলবির ফাঁদে পড়ে ৫১ রানে থামেন। তিনি ৪৩ বলে ৬টি চারে নিজের ইনিংস সাজান। এরপর দলের অন্য ব্যাটাররা নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারান। শেষদিকে লোকি ফার্গুসন (১৮) ও শিভাম মাভির (২০) কল্যাণে কেবল হারের ব্যবধানই কমায় কলকাতা।

পুরো আইপিএলেই ব্যর্থ কলকাতা অধিনায়ক ইয়ান মরগান ফাইনালে ব্যক্তিগত ৪ রানে বিদায় নেন। আর জাদেজার বলে এলবি হওয়া সাকিব আল হাসান শূন্য রানে মাঠ ছাড়েন।

চেন্নাই বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট পান ঠাকুর। জস হ্যাজেলউড ও জাদেজা দুটি করে উইকেট তুলে নেন। এছাড়া চাহার ও ব্রাভো একটি করে উইকেট ভাগ করে নেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত