দ্বিতীয় দিনটা নিজেদের করতে পারবে বাংলাদেশ?

প্রকাশ : ১৬ মে ২০২২, ০৯:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক

ছবি- বিসিবি

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনের শুরুটা বাংলাদেশের দখলে থাকলেও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে দিনশেষে প্রথম দিনটিকে আদতে নিজেদের করে নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ৪ উইকেটে ২৫৮ রান নিয়ে আজ দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করবে লঙ্কান দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান ম্যাথিউস আর দীনেশ চান্দিমাল। 

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসে হেরে ফিল্ডিং করতে নামে বাংলাদেশ। প্রথম সেশনেই জোড়া আঘাত হেনে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং নেয়াটাকে প্রায় ভুলই প্রমাণ করে দিচ্ছিলেন নাঈম হাসান। লঙ্কান শিবিরে ভয় ধরিয়ে দিয়েছিলেন তরুণ এই অফ স্পিনার। নাঈমের দুই উইকেটের সাথে প্রথমদিন একটি করে উইকেট নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম আর সাকিব আল হাসান। 

স্পিনারদের কল্যাণে গতকাল দিনের শুরুটা বাংলাদেশের হওয়ার ইঙ্গিত দিলেও চার নাম্বারে ব্যাট করতে নামা ম্যাথিউস সব হিসাব পাল্টে দিয়েছেন। ৬৬ রানে শ্রীলঙ্কা ২ উইকেট হারানোর পর তৃতী উইকেট জুটিতে কুশল মেন্ডিসকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন ম্যাথিউস। মেন্ডিস ফিফটি করে আউট হয়ে গেলেও পঞ্চম উইকেটে চান্দিমালকে সঙ্গে নিয়ে আবারও জুটি বাঁধেন ম্যাথিউস। দিনশেষে তিনি অপরাজিত ২১৩ বলে ১১৪ রান নিয়ে। তার সাথে ৭৭ বলে ৩৪ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন চান্দিমাল।

তবে টেস্টের এই প্রথম দিন শেষে কোন দলকেই এগিয়ে রাখতে রাজি নন বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথ। তার মতে, দ্বিতীয় দিনের আগে দুই দলই এখন ফিফটি-ফিফটি অবস্থায় রয়েছে। ম্যাথিউসের ব্যাটে ভর করে ভালো খেলেছে শ্রীলঙ্কা, অন্যদিকে বাংলাদেশও ভালো বোলিং করেছে।

এদিকে আবার প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশি স্পিনারদের প্রশংসা বন্যায় ভাসিয়েছেন সফরকারীরা। সাকিব, তাইজুল আর নাঈম হাসানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন কুশল মেন্ডিস।

তবে সাগরিকায় আজ সংখ্যার ভিত্তিতে কিছুটা পিছিয়ে থেকেই দিনের খেলা শুরু করবে বাংলাদেশ। আজ শ্রীলঙ্কাকে ৪০০ আনের মধ্যে বেঁধে ফেলতে চায় বাংলাদেশ। তেমনই গতকাল প্রথমদিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে জানিয়ে গিয়েছিলেন স্পিন কোচ হেরাথ।

তিনি জানান, সোমবার ম্যাচের দ্বিতীয় দিন শ্রীলঙ্কাকে ৪০০ রানের মধ্যে বেঁধে ফেলতে চায় বাংলাদেশ, তারা এখন ৪ উইকেটে ২৫৮ রানে আছে। তাই আগামীকাল (আজ) সকালে আমাদের দ্রুত দুইটি উইকেট তুলে নিতে হবে। আমরা তাদের ৪০০'র নিচে আটকাতে চাই। তাই তাদেরকে আর ১২০-১৩০ রানের অলআউট করতে হবে।

অন্যদিকে শ্রীলঙ্কাকে ৪০০ রানে আটকালেই যে কাজ শেষ হয়ে যাবে এমনটা ভাবতেও নিষেধ করেছেন সাবেক এই লঙ্কান স্পিনার। ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলঙ্কার তিন স্পিনারকেও খেলতে হবে বলে বেশ সতর্ক টাইগারদের স্পিন কোচ হেরাথ।

শেষ পাঁচ বছরে ছয়টি টেস্ট ম্যাচ হয়েছে সাগরিকায়। যেখানে স্পিনাররা পেয়েছেন ১৫৭ উইকেট। এর মধ্যে সফরকারী দলের স্পিনাররা পেয়েছেন ৭৮টি, বাংলাদেশি স্পিনাররা ৭৯টি। তাই দ্বিতীয় ইনিংসে টাইগার ব্যাটারদের কাজটা সহজ হবে না।

তার আগে আজ দিনের শুরু থেকেই লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরার কাজটা করতে হবে ওই সাকিব, তাইজুল বা নাঈমদেরই। তাদের সফলতার উপরেই নির্ভর করছে বাংলাদেশ ঠিক কতটা সফল হবে এই টেস্টে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসএস