ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ আপডেট : ৭ মিনিট আগে
শিরোনাম

সাকিবের বিষয়ে সিদ্ধান্ত, অপেক্ষা করতে বললেন দুদক সচিব

  নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৯:৩২

সাকিবের বিষয়ে সিদ্ধান্ত, অপেক্ষা করতে বললেন দুদক সচিব
সাকিব আল হাসান। ফাইল ছবি
নিজস্ব প্রতিবেদক

বর্তমানে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর (শুভেচ্ছাদূত) হিসেবে রয়েছেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। তবে তাকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে রাখা হবে কিনা সে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে দুদক।

মঙ্গলবার দুদকের প্রধান কার্যালয়ে গণমাধ্যমকে দুদক সচিব মো. মাহবুব হোসেন জানান, আপনারা জানেন যে সাকিব আল হাসান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার এবং দলের অধিনায়ক। তার সঙ্গে দুদকের ২০১৮ সালে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে যে চুক্তিটি হয়েছিল, সেটি ছিল বিনা পারিশ্রমিকে উনি দুদকের হয়ে তথ্যচিত্র তৈরিতে কাজ করবেন। তার সঙ্গে শুধু একবার ২০১৮ সালে যখন দুদকের ১০৬ কমপ্লেইন হটলাইন চালু হয়, তখন একটি তথ্যচিত্র করা হয়েছিল। পরে আমরা আর কোনো তথ্যচিত্র বা কোনো কার্যক্রম করিনি।

দুদকের শুভেচ্ছাদূত সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে তিনি দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত। এতে কমিশনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে কিনা বা এ অবস্থাতেও সাকিব আল হাসান কমিশনের শুভেচ্ছাদূত থাকছেন কি না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে দুদক সচিব বলেন, বিষয়টি প্রয়োজনে কমিশন দেখবে, সেজন্য অপেক্ষা করতে হবে।

গেল কয়েক মাস ধরে মাঠের চেয়ে মাঠের বাইরে বেশি আলোচিত সাকিব। বাংলাদেশ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের বিরুদ্ধে গুরুতর সব অভিযোগ উঠছে। জুয়া প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি, শেয়ারবাজারে কারসাজির পর নিজের বাবার নাম জালিয়াতি করার অভিযোগ তার বিরুদ্ধে।

গত মাসে অনলাইন জুয়াভিত্তিক প্রতিষ্ঠান বেটউইনারের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান বেটউইনার স্পোর্টসের সঙ্গে চুক্তি করে বিসিবির তিরস্কারের শিকার হয়েছিলেন সাকিব। বলা হয়েছিল- চুক্তি বাতিল না করলে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়বেন টাইগার অলরাউন্ডার। বিসিবির এমন অনড় অবস্থায় শেষ পর্যন্ত সেই চুক্তি থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন সাকিব।

একের পর এক বিতর্কের মধ্যেই নতুন করে বাবার নাম নিয়ে আলোচনায় আসেন সাকিব। খন্দকার মাসরুর রেজার পরিবর্তে কোম্পানি ফর্মে নাম দেওয়া হয়েছে কাজী আব্দুল লতিফ। যদিও মোনার্ক হোল্ডিংস লিমিটেডের ফর্মে সাকিব আল হাসানের বাবার নাম খন্দকার মাশরুর রেজার জায়গায় ‘ভুলক্রমে’ ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী সাদিয়া হাসানের বাবা কাজী আব্দুল লতিফের নাম উঠে এসেছে বলে দাবি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/সুজন/আরকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত