ঢাকা, শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ অাপডেট : ১২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৪:৪০

প্রিন্ট

৪৪২ রানে এগিয়ে টাইগারদের ইনিংস ঘোষণা

৪৪২ রানে এগিয়ে টাইগারদের ইনিংস ঘোষণা
স্পোর্টস ডেস্ক

মিরপুর টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ ৬ উইকেট হারিয়ে তোলে ২২৪ রান, এরপরই ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। ২১৮ রানে এগিয়ে থেকে চতুর্থ দিন ব্যাটিংয়ে নেমে মাহমুদউল্লাহর প্রথম শতকের পরেই ইনিংস ঘোষণা করে বাংলাদেশ। জিততে হলে এর মধ্যেই জিম্বাবুয়ের ১০ উইকেট তুলতে হবে টাইগারদের।

এর আগে জিম্বাবুয়েকে ফলোঅন না করিয়ে ২১৮ রানে এগিয়ে থেকে চতুর্থ দিন ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের পঞ্চম ওভারেই বিদায় নেন ইমরুল কায়েস। কাইল জারভিসের বলে ব্রেন্ডন মাভুতার হাতে ধরা পড়ার আগে ইমরুল করেন মাত্র ৩ রান। দলীয় ৯ রানের মাথায় বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারায়। এক বল পরেই জারভিস বোল্ড করেন লিটন দাসকে (৬)। পরের ওভারে বিদায় নেন গত ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান মুমিনুল হক। ডোনাল্ড তিরিপানোর বলে উইকেটের পেছনে রেগিস চাকাভার গ্লাভসবন্দি হন মুমিনুল (১)। দলীয় ১০ রানে বাংলাদেশ তৃতীয় উইকেট হারায়।

দলীয় ২৪ রানের মাথায় বিদায় নেন গত ইনিংসের ডাবল সেঞ্চুরিয়ান মুশফিকুর রহিম। তিরিপানোর বলে মাভুতার তালুবন্দি হওয়ার আগে মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ৭ রান।

এরপর জুটি গড়েন অভিষিক্ত মোহাম্মদ মিঠুন এবং অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ১১৮ রানের জুটি গড়েন তারা। দ্বিতীয় সেশন পর থেকেই হাত খুলে খেলতে থাকেন টাইগাররা। অভিষেক টেস্টে হাফসেঞ্চুরির দেখা পান মোহাম্মদ মিঠুন। দলীয় ১৪৩ রানের মাথায় বিগ শট খেলতে গিয়ে সিকান্দার রাজার বলে ক্যাচ তুলে দেন মিঠুন। বিদায়ের আগে ১১০ বলে চারটি চার আর একটি ছক্কায় মিঠুন করেন ৬৭ রান। দ্রুত বিদায় নেন আরিফুল হক (৫)।

এরপর মিরাজকে সঙ্গে নিয়ে টেস্টে আট বছর পর সেঞ্চুরি করলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মিরপুর টেস্টে ১২২ বলে সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। ১০১ রানে অপরাজিত থাকেন এই টাইগার ক্রিকেটার। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে রিয়াদের এটি দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। এর আগে ২০১০ সালের ফ্রেব্রুয়ারিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করেছিলেন এই টাইগার অলরাউন্ডার। হ্যামিলটনে অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে ১১৫ রান করে আউট হয়েছিলেন তিনি। রিয়াদের সেঞ্চুরির পরই চা বিরতির ঘোষণা দেন আম্পায়াররা। বাংলাদেশও ইনিংস ঘোষণা করে।

বাংলাদেশ একাদশ:

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), ইমরুল কায়েস, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিঠুন, খালেদ আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, আরিফুল হক এবং তাইজুল ইসলাম।

জিম্বাবুয়ে একাদশ:

হ্যামিলটন মাসাকাদজা (অধিনায়ক), ব্রায়ান চারি, ব্রেন্ডন টেইলর, শন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা, পিটার মুর, রেগিস চাকাভা, ব্রেন্ডন মাভুতা, ডোনাল্ড তিরিপানো, কাইল জারভিস এবং তেন্দাই চাতারা।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • অালোচিত