ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৩ জুন ২০১৯, ১৬:৩৮

প্রিন্ট

কোপা আমেরিকা কাঁপাতে চায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা

কোপা আমেরিকা কাঁপাতে চায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা
স্পোর্টস ডেস্ক

ঘরের মাঠে ২০১৪ সালের বিশ্বকাপের দুঃসহ স্মৃতি ভুলে কোপা আমেরিকার স্বাগতিক হিসেবে শিরোপা ঘরে তুলতে চায় ব্রাজিল। এদিকে মাত্র বছর খানেক আগে রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে হতাশাজনক বিদায়ের পর আর্জেন্টিনাকে অন্তত একটি শিরোপা উপহার দিয়ে নিজের ক্যারিয়ার শেষ করতে চান লিওনেল মেসি।

২০১৪ সালের বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে জার্মানীর কাছে ৭-১ গোলে বিধ্বস্ত হবার ম্যাচটি ব্রাজিলিয়ান ফুটবলের অন্যতম কালো অধ্যায়। সেই দুঃসহ স্মৃতি থেকে খেলোয়াড়রা অনেকদিন পর্যন্ত বের হতে পারেনি। চার বছর পর রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্রাজিলের যাত্রা খুব একটা সুখকর ছিলনা। চির প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের তুলনায় রাশিয়ায় আর্জেন্টিনার যাত্রাটা আরো খারাপ ছিল। শেষ ১৬’র লড়াইয়ে তাদেরকে ফ্রান্সের কাছে থেমে যেতে হয়েছিল। এই ফলাফলে দলের কোচিং স্টাফ ও খেলোয়াড়দের ওপর দুর্দান্ত চাপ সৃষ্টি হয়।

এদিকে টানা তিনটি কোপা আমেরিকা শিরোপা জয়ে দুই ফেবারিট ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনাকে পিছনে ফেলে চিলিকেও অন্যতম ফেবারিট হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে মেসির সাফল্যের খরা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই আলোচনা-সমালোচনা চলছে। যে কারণে ‘সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়’ এর তকমাটাও কেন জানি মেসির ক্ষেত্রে বিতর্কই রয়ে গেছে। এক সাক্ষাতকারে মেসি সম্প্রতি বলেছেন, ‘জাতীয় দলের হয়ে কিছু একটা অর্জন করেই আমি ক্যারিয়ারের ইতি টানতে টাই। অন্তত সেই অর্জনের জন্য নিজের সেরাটা দিয়ে যেতে চাই।’

যদিও দলের জয়-পরাজয়ে চেষ্টা না করার জন্য মেসির বিরুদ্ধে কখনই কোন অভিযোগ আনা হয়নি। বিশেষ করে চারটি বড় টুর্নামেন্টের ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে পৌঁছে দেবার পিছনে মেসির অবদান ছিল সর্বাগ্রে। এর মধ্যে কোপা আমেরিকার সর্বশেষ দুটি ফাইনালে পেনাল্টিতে চিলির কাছে পরাজিত হয়ে হতাশ হতে হয়েছে আলবি সেলেস্তাদের। ১৯৯৩ সালের পর থেকে আর্জেন্টিনা কোপা আমেরিকা শিরোপা জিতেনি। ৩২ বছর বয়সী মেসিরও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সাফল্য খুঁজে পাবার সময় ফুরিয়ে আসছে।

তবে এবারের আসরে ব্রাজিলিয়ান ‘পোস্টার বয়’ নেইমারের অনুপস্থিতি আর্জেন্টিনার শিরোপা জয়ের সুযোগকে কিছুটা হলে এগিয়ে রাখবে। গোঁড়ালির ইনজুরির কারনে টুর্নামেন্ট থেকে নেইমার ছিটকে পড়ায় স্বাগতিক হিসেবে ব্রাজিল শিবিরে দুঃশ্চিন্তা বয়ে এনেছে। যদিও নেইমারের অনুপস্থিতিতে রিচারলিসন, ডেভিড নেরেসসহ কোচ তিতের হাতে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় রয়েছেন। আশার কথা হচ্ছে ব্রাজিলিয়ানরা বেশ ফর্মে আছে যা পুরো দলকে বাড়তি আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে। ফিলিপ কুটিনহোর উপরই ব্রাজিলের সাফল্য নির্ভর করছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

দক্ষিণ আমেরিকান সর্বোচ্চ এই আসরে কনমেবল নিয়মিত কিছু অতিথি দেশকে এই টুর্নামেন্টে খেলার আমন্ত্রন জানিয়ে থাকে। এবার এশিয়ান কাপের শীর্ষ দুই দলকে কোপা আমেরিকায় আমন্ত্রন জানানো হয়েছে। ১৯৯৯ সালে খেলা জাপানের সাথে এবার খেলতে আসছে ২০২২ বিশ্বকাপের স্বাগতিক কাতার। দুটি দল যথাক্রমে গ্রুপ-সি ও গ্রুপ-বি’তে লড়াই করবে।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত