ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯ আপডেট : ৯ মিনিট আগে
শিরোনাম

ফাইনালের টিকিট বিক্রি করে দিচ্ছেন ভারতীয় সমর্থকরা

  ক্রীড়া ডেস্ক

প্রকাশ : ১২ নভেম্বর ২০২২, ১৭:১৭

ফাইনালের টিকিট বিক্রি করে দিচ্ছেন ভারতীয় সমর্থকরা
ভারতীয় সমর্থক। ছবি: সংগৃহীত
ক্রীড়া ডেস্ক

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ফাইনাল হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। তবে পাকিস্তান জায়গা করে নিলেও হতাশ করে ভারত। আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে বিধ্বস্ত হতে হয় রোহিত শর্মাদের। অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসকারী অনেক ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমিই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ফাইনালের জন্য মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডের টিকিট কিনে রেখেছিলেন। কিন্তু সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের হাতে বিধ্বস্ত হওয়ার পর হতাশ হয়ে সেই টিকিটই অনেক কম দামে বিক্রি করে দিচ্ছেন তারা।

অস্ট্রেলিয়ার অন্যান্য শহরের মতো মেলবোর্নে ভারতীয় প্রবাসীরাই সংখ্যায় বেশি, প্রায় আড়াই লাখের মতো। মেলবোর্নে বসবাসকারী অনেক ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ফাইনালের জন্য এমসিজির টিকিট কিনে রেখেছিলেন। কিন্তু সেমিফাইনালে জস বাটলারদের কাছে রোহিতদের ১০ উইকেটের হার তাদের মনটাই ভেঙে দিয়েছে। যে ফাইনালে ভারত নেই, সে ফাইনাল তারা আর দেখতে চান না। অনেকেই তাই এখন সস্তায় টিকিট ছেড়ে দিচ্ছেন। এই সুযোগে কম দামে সেসব টিকিট কিনে নিচ্ছেন পাকিস্তানিরা।

ভারত বনাম পাকিস্তানের খেলা হলে এমসিজি পুরোপুরি ভর্তি হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু পাকিস্তান বনাম ইংল্যান্ড ম্যাচ নিয়ে সেই সম্ভাবনা দেখতে পারছেন না কেউই। ভারতীয়রা যে টিকিট কিনেছেন, তা বিক্রি করে দেয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। জানা গেছে, ১০ অস্ট্রেলীয় ডলার বা মাত্র ৫০০ ভারতীয় রূপিতেও টিকিট বিক্রি করে দিতে চাইছেন ভারতীয় সমর্থকরা। সঙ্গে বিনামূল্যে বিয়ার দেয়ার প্রতিশ্রুতিও রয়েছে। এমনকি, ক্রেতা চাইলে তার বাড়ির দোরগোড়ায় গিয়ে টিকিট দিয়ে আসার প্রতিশ্রুতিও দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবারের ম্যাচের পরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি টিকিট ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, অ্যাডিলেডের বাইরে চিৎকার করে ডেকে ডেকে ফাইনালের টিকিট বিক্রির চেষ্টা করছেন ভারতীয় সমর্থকরা। অনেকে বিনামূল্যে লাঞ্চ, বিয়ারের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।

বেসরকারি ভাবেও জানা গেছে, ভারত বিদায় নেয়ার পর রাতারাতি টিকিটের দাম অনেকটাই কমে গিয়েছে। এমসিজি-তে অনেক টিকিট কেটেছিলেন ভারতীয়রা। এক হারে তারা আগ্রহ হারিয়েছেন।

রোববার মেলবোর্নে পাকিস্তান-ইংল্যান্ড ফাইনাল শুরু হবে দুপুর ২টায়। তার ৩০ মিনিট আগে অর্থাৎ দুপুর দেড়টায় টস অনুষ্ঠিত হবে। যদি বৃষ্টি হয় তা হলে টস পিছিয়ে যাবে। আর টসের পরে বৃষ্টি শুরু হলে খেলা শুরু হতে দেরি হবে।

ফলাফলের জন্য অন্তত ১০ ওভার করে খেলতেই হবে দু’দলকে। সাধারণত টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৫ ওভার করে দু’দলকে ব্যাট করতেই হয় ফলাফলের জন্য। বিশ্বকাপের জন্য তা করা হয়েছে ১০ ওভার। অবশ্য রিজার্ভ ডে রাখা হয়েছে ফাইনালে। বৃষ্টির জন্য রোববার বল মাঠে না গড়ালে খেলা হবে সোমবার। সেক্ষেত্রে একটি নতুন নিয়ম রেখেছে আইসিসি। তাহলো- রোববার যদি কিছুটাও খেলা হয়, সোমবার তার পর থেকে বাকি খেলা হবে। অর্থাৎ, নতুন করে খেলা শুরু হবে না। যেখানে থামবে, সেখান থেকেই পরের দিন খেলা শুরু হবে।

আর বৃষ্টির কারণে সোমবারও মাঠে বল না গড়ালে কি হবে? আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, সেক্ষেত্রে দুই দলকে যুগ্মচ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে। এককভাবে চ্যাম্পিয়ন হওয়া হবে না বাবর বা বাটলারদের। হবে শিরোপার ভাগাভাগি। ফাইনালে উঠেও দু’দলেরই জয় অধরা থেকে যাবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/আরআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত