ঢাকা, বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ৬ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১০:৩২

প্রিন্ট

বাংলাদেশ জার্নালে সংবাদ প্রকাশের পরই পরিদর্শনে উপপরিচালক

বাংলাদেশ জার্নালে সংবাদ প্রকাশের পরই পরিদর্শনে উপপরিচালক
ছবি: শেরপুরে কালভার্ট

শেরপুর প্রতিনিধি

দৈনিক বাংলাদেশ জার্নালে সংবাদ প্রকাশের পর ভেঙে যাওয়া সেই কালভার্ট পরিদর্শন করেছেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক এটিএম জিয়াউল ইসলাম। বৃহস্পতিবার বিকালে শেরপুরের জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুবের নির্দেশে জেলার ঝিনাইগাতীর ধানশাইল ইউনিয়নের মাঝাপাড়া এলাকার বক্স কালভার্টটি তিনি পরিদর্শন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবেল মাহমুদ, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) জয়নাল আবেদীন, ধানশাইল ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওইদিন রাতে উপ-পরিচালক গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, ভেঙে যাওয়া বক্স কালভার্টটি পরিদর্শন করা হয়েছে। আগামী সাত কর্ম দিবসের মধ্যে এ বিষয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

ধানশাইল ইউনিয়ন পরিষদ ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে লোকাল গর্ভন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট-৩ (এলজিএসপি’র) আওতায় ধানশাইল ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে মাঝাপাড়া এলাকার আব্দুল হামিদের বাড়ির সম্মুখে খালের ওপর ২ লাখ ৭৯ হাজার টাকা ব্যয়ে একটি বক্স কালভার্ট নির্মাণ করা হয়।

ছবি: শেরপুরে কালভার্ট

স্থানীয় শাহজাহান কনস্ট্রাকশন নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এ কাজটি সম্পন্ন করে। কাজ শেষে ২০১৯ সালের ৩০ মে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিলের টাকা তুলে নেন। বক্স কালভার্টটি নির্মাণ শেষে এর ওপর দিয়ে জনসাধারণ চলাচল শুরু করার ১৩ মাস পরে চলতি বছরের জুন মাসের বন্যায় কালভার্টটি বিধ্বস্ত হয়। এ নিয়ে এলাকাবাসী ঠিকাদারের বিরুদ্ধে নিম্নমানের কাজ করার অভিযোগ তোলেন।

কালভার্টটি বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় ২৪ নভেম্বর ভোগান্তির শিকার এলাকাবাসীর বক্তব্যসহ বাংলাদেশ জার্নালে ‘প্রায় ৩ লাখ টাকার কালভার্ট ১৩ মাসেই নষ্ট’ শিরোনামে খবর প্রকাশ করে। এর পরেই সংশ্লিষ্ট দপ্তরের টনক নড়ে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত