ঢাকা, সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৪৬

প্রিন্ট

সরকারি হাসপাতালে অক্সিজেন চুরি করার সময় নারী আটক

সরকারি হাসপাতালে অক্সিজেন চুরি করার সময় নারী আটক
ছবি: প্রতিনিধি

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

হবিগঞ্জ জেলা সদর আধুনিক হাসপাতাল থেকে জীবন রক্ষাকারী যন্ত্র অক্সিজেন সিলিন্ডার চুরির করে যাওয়ার সময় অক্সিজেনের সিলিন্ডারসহ এক পাচারকারী জোসনা আক্তার নামে এক নারীকে হাতেনাতে আটক করেছে জনতা।

পরে উত্তম মধ্যম দিয়ে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।তবে রোগীদের অভিযোগ নকল চোর ধরলেও আসল চোর রয়ে গেছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

সবার সামনে আটক পাচারকারী নারী গনি মিয়ার উপস্থিতিতেই সামনাসামনি বলে যে গনি ভাই আমারে এই অক্সিজেন সিলিন্ডার দিছে এক হাসপাতালের মালিকের কাছে নিয়ে যেতে ঐ মালিক শহরের কালীবাড়ি ক্রসরোড আছে। সে এই অক্সিজেন সিলিন্ডার শুধু পৌঁছে দেয়ার জন্য ৫০০ টাকা পাবে। এই কথা বারবার বলার পরও তাকে ধরা হচ্ছে না। হাসপাতালের অনেক দামি দামি জিনিসপত্র প্রায়ই চুরি হচ্ছে। এতে করে হাসপাতালের সবকটি ওয়ার্ডেই অক্সিজেন, স্যালাইন, ঔষধ সঙ্কট দেখা দিচ্ছে। তাছাড়া ভালো দামী ওষুধের কথা বলতে চাইছিলে একই কথা সাপ্লাই নেই বলে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের একজন কর্মচারী জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্টোর কিপার হাবিব মিয়া, গনি এবং মোশাররফ এদের নেতৃত্বে হাসপাতাল থেকে অক্সিজেনসহ বিভিন্ন ওষুধ দীর্ঘ দিন ধরে চুরি হচ্ছে। আর এসব প্রয়োজনীয় জিনিস কতিপয় লোক শহরের বিভিন্ন প্রাইভেট হাসপাতাল ও ফার্মেসিতে ব্যবহার করছে। যদি কেউ প্রতিবাদ করতে গেলে তার চাকরি শেষ কারণ এরা অনেক টাকার মালিক সব করতে পারে।

শনিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালের এক পরিচ্ছন্নতাকর্মী মালতি ময়লা আবর্জনা ফেলার সময় হাসপাতালের মহিলা ওয়ার্ড থেকে একটি অক্সিজেন সিলিন্ডার বস্তার ভেতরে করে টমটমে তোলার সময় জনতা তাকে আটক করে। পরে সদর থানায় খবর দিলে এসআই জুয়েল সরকার ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারীকে নিয়ে যান। এ সময় ওই নারী জিজ্ঞাসাবাদে হাবিব অক্সিজেন সিলিন্ডার চুরির সাথে জড়িত থাকার কথা জানায়।

এ বিষয়ে হাসপাতালের তত্বাবধায়ক হেলাল উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বাংলাদেশ জার্নালকে জানান, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। যেই এতে জড়িত থাকুক ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতোপূর্বেও অনিয়মের অভিযোগে এক কর্মচারীকে অন্যত্র সরানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার ওসি মাসুক আলী বাংলাদেশ জার্নালকে জানান, এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। যেই এর সাথে জড়িত থাকুক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত