ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ১৭ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১০:০৯

প্রিন্ট

অনাড়ম্বর বিজু উৎসবের শেষদিন আজ

অনাড়ম্বর বিজু উৎসবের শেষদিন আজ

জার্নাল ডেস্ক

পাহাড়ে অনাড়ম্বর বিজু উৎসবের শেষদিন আজ। বৈশ্বিক মহামারী করোনা সংক্রমণ আতঙ্কের মধ্যে সীমিতভাবে রাঙ্গামাটিসহ তিন পার্বত্য জেলায় উদযাপিত হচ্ছে পাহাড়ি জনগোষ্ঠীর তিন দিনব্যাপী অনাড়ম্বর বিজু উৎসব।

প্রতিবছর চৈত্রসংক্রান্তিতে বাংলাবর্ষ বিদায় ও বরণ উপলক্ষ্যে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়। উৎসবটিকে চাকমারা বিজু, মারমারা সাংগ্রাই ও ত্রিপুরারা বৈসুক বা বৈসাবি নামে পালন করে।

রাঙামাটিতে শুরুর দিন সোমবার কোনো আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই মহান সৃষ্টিকর্তার উদ্দেশে পানিতে ফুল ভাসিয়ে পালিত হয়েছে ফুলবিজু। চৈত্রসংক্রান্তিতে মঙ্গলবার যার যার ঘরে উদ্যাপিত হয়েছে মূল বিজু। আজ পহেলা বৈশাখ বর্ষবরণের মধ্যদিয়ে পালিত হবে গোজ্জেপোজ্জে দিন

প্রতিবছর উৎসব ঘিরে জেলার বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং সরকারি-বেসরকারি সংস্থা পাহাড়িদের ঐতিহ্যবাহী খেলাধুলা, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, গ্রামীণ পালাগান, র‌্যাফেল ড্র, পাজন ও পিঠা উৎসব, নিজস্ব সংস্কৃতির প্রদর্শনী, নাট্যমঞ্চ, চলচ্চিত্র, সাময়িকী প্রকাশনাসহ নানা বর্ণাঢ্য কর্মসূচির আয়োজন করলেও এবার করোনার কারণে সব কর্মসূচি বাতিল করা হয়েছে।

খাগড়াছড়িতে সদরের খাগড়াপুরখালে মঙ্গলবার সকালে ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের ফুলপূজার মধ্যদিয়ে হারি বৈসু অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্যের সহধর্মিণী মল্লিকা ত্রিপুরা। উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু।

এ সময় ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরে ত্রিপুরা নারীরা মাধবীলতা, অলকানন্দ, জবা, বিজু ফুলসহ নানা রঙের ফুল ভাসান। আজ হবে মূল বৈসু।

মল্লিকা ত্রিপুরা জানান, হারি বৈসু ত্রিপুরাদের ঐতিহ্যবাহী বৈসু উৎসবের একটি অংশ। এদিন ভোরে ফুল দিয়ে ঘরবাড়ি সাজানো। গবাদি পশুকে গোসল করানো হয়। শিশুরা বাড়ি বাড়ি ফুল বিতরণ করে। দেবতার নামে নদীতে বা ঝরনায় ফুল ছিটিয়ে খুমকামিং পূজা দেওয়া হয়।

খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুই প্রু চৌধুরী অপু বলেন, ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীর মানুষ হাজার বছর তাদের ঐতিহ্য ও স্বকীয়তা ধরে রেখে বৈসু উৎসব পালন করছে। পার্বত্য জেলা পরিষদ ত্রিপুরাসহ অন্যান্য জনগোষ্ঠীর সংস্কৃতি বিকাশ ও সংরক্ষণে সব সময় পাশে থাকবে।

বাংলারেদশ জার্নাল/ এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত