ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২২ আগস্ট ২০১৯, ১৮:১৩

প্রিন্ট

গর্ভের সন্তান নষ্ট হওয়ায় চুরির পথ বেছে নিলেন গৃহবধূ

গর্ভের সন্তান নষ্ট হওয়ায় নবজাতক চুরি
অনলাইন ডেস্ক

শিশু চুরির অভিযোগে এক গৃহবধূকে আটক করেছে পুলিশ। ডাক্তার পরিচয়ে ওই গৃহবধূ হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল থেকে চারদিনের এক নবজাতককে চুরি করেছেন। তবে ঘটনার দুই ঘণ্টার মধ্যেই ওই নবজাতককে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন তার স্বজনরা। পরে স্বজনদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত লোপা আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (২১ আগস্ট) হবিগঞ্জ শহরের পুরানমুন্সেফী এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত চারদিন আগে হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন চুনারুঘাট উপজেলার জোয়ার লালচান্দ গ্রামের মোর্শেদ কামালের স্ত্রী ফাতেমা বেগম। বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে লোপা আক্তার নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে ওই নবজাতককে নিয়ে কৌশলে হাসপাতাল থেকে সটকে পড়েন। কিছুক্ষণ পর স্বজনরা বিষয়টি কর্তব্যরত চিকিৎসক ও নার্সদের জানালে চুরির বিষয়টি ফাঁস হয়। একপর্যায়ে স্বজনরা একজন টমটম চালকের সহায়তায় শহরের পুরানমুন্সেফী এলাকার রিপন আহমেদের স্ত্রী লোপা আক্তারের বাসা থেকে ওই নবজাতককে উদ্ধার করেন।

লোপার প্রতিবেশীরা জানান, লোপা নিজেও অন্তঃসত্ত্বা। ইতোপূর্বে একাধিকবার তার বাচ্চা নষ্ট হয়েছে। চিকিৎসকের মাধ্যমে এবারও জানতে পেরেছেন যে তার গর্ভের বাচ্চা নষ্ট হয়ে গেছে। হতাশার কারণেই তিনি অন্যের বাচ্চা চুরি করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. মাসুক আলী জানান, স্বজনদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে লোপাকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। আটক লোপা আক্তার শহরের পুরানমুন্সেফী এলাকার রিপন আহমেদের স্ত্রী।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত