ঢাকা, রোববার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৪ জুলাই ২০২০, ১৩:২৬

প্রিন্ট

মেয়রের আত্মহত্যাকে ঘিরে বিভক্ত দক্ষিণ কোরিয়া

মেয়রের আত্মহত্যাকে ঘিরে বিভক্ত দক্ষিণ কোরিয়া
জার্নাল ডেস্ক

যৌন হয়রানির অভিযোগের পর মেয়রের আত্মহত্যাকে ঘিরে বিভক্ত দক্ষিণ কোরিয়া। দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস এর প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

সোমবার শেষকৃত্যে অনেক ভক্ত তার কফিনের কাছে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান আবার অনেকই অনলাইনে সমালোচনা করেন। পার্কের ভক্তরা ‘ভালো থাকুন, শান্তিতে থাকুন’, ‘আমার হৃদয় ভেঙ্গে গেছে’, ‘আপনি সেরা মেয়র’ ইত্যাদি বার্তা অনলাইনে পোস্ট করছেন।

কফিনের সামনে গিয়ে চিৎকার করে বলছেন, ‘মি, মেয়র, আমরা আপনাকে ভালবাসি’। অন্যদিকে সমালোচকরা ‘আপনার জন্য লজ্জা’, ‘ভণ্ড’ এবং ‘আপনি করদাতাদের অর্থ দিয়ে কি করেছেন?’ ইত্যাদি মন্তব্য করছেন।

উদারপন্থী রাজনীতিবিদ পার্ক একজন সংস্কারপন্থী, মানবাধিকার এবং নারী অধিকারকর্মী হিসেবে নিজকে প্রকাশ করেছিলেন। টানা ৯ বছর ধরে মেয়র হিসেবে জনগণের কাছে বিপুল জনপ্রিয় পার্ককে ২০২২ সালের সম্ভাব্য প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে ভাবা হচ্ছিল।

মৃত্যুর পর সিউলের সিটি হলের সামনে তার কফিন রেখে ৫ দিনের শোকের ঘোষণা দেয়া হয়। এর বিরুদ্ধে ৫ লাখ ৬১ হাজার পিটিশন দায়ের করা হয়েছে, তারা ছোটখাট পারিবারিক আয়োজনের দাবি করেন।

শুক্রবার সিউলে নিজের বাসভবনে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় মেয়র পার্ক ডিজন-সুনকে। এর কিছুদিন আগে গণমাধ্যমে তার সাবেক সেক্রেটারিকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগ আলোচিত হয়। পুলিশ জানায়, পার্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ায় অহরহই বিনোদন তারকা, ক্রীড়ার কোচ, আইনজীবী এবং রাজনীতিবিদদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে। অনেকেই এটিকে কোরীয়দের নারীবিদ্বেষী মনোভাবের পরিচয় বলে মনে করেন। গত বছর সাবেক গভর্নর ও একসময়ের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী আন হি-জুং সাবেক সহকারীকে ধর্ষণের দায়ে তিন বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন। চলতি বছরের শুরুতে বুসানের মেয়র ওহ কিও-ডন যৌন হয়রানির দায়ে পদত্যাগ ও ক্ষমাপ্রার্থনা করেছেন। এ দু ব্যক্তিই প্রেসিডেন্ট মুন জে ইনের ঘনিষ্ট ছিলেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/ এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত