ঢাকা, শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৫৯ মিনিট আগে

প্রকাশ : ২৩ এপ্রিল ২০২১, ১৩:৪৭

প্রিন্ট

ত্রিপুরায় জানালা ভেঙে পালালো ৩১ করোনা রোগী

ত্রিপুরায় জানালা ভেঙে পালালো ৩১ করোনা রোগী
ফাইল ছবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে এক কোটি ৬২ লাখ ৫৭ হাজার ৩০৯ জন এবং মারা গেছে এক লাখ ৮৬ হাজার ৯২৮ জন। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে তিন লাখ ৩২ হাজার ৫০৩ জন এবং মারা গেছে দুই হাজার ২৫৬ জন।

দেশটিতে করোনা আতঙ্কের মধ্যেই এবার সকলের নজর এড়িয়ে করোনা হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেলেন মোট ৩১ জন রোগী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে, ত্রিপুরার আগরতলার অরুন্ধতীনগরের পিআরটিআই কোভিড কেয়ার সেন্টারে। গত বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশের নজর এড়িয়ে ওই কোভিড কেয়ার সেন্টারের জানালা ভেঙে ৩১ জন রোগী পালিয়ে যান বলে জানিয়েছেন পশ্চিম ত্রিপুরার অরুন্ধতীনগরের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শৈলেষ কুমার যাদব।

এ বিষয়ে ত্রিপুরা সদরের সাবডিভিশনাল পুলিশ অফিসার অর্নিবান দাস জানান, ভিনরাজ্য থেকে বিশেষ করে উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান এবং পশ্চিমবঙ্গ থেকে আগত যাত্রীদের নিয়মমাফিক করোনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে প্রায় ৫০ জন যাত্রীর রিপোর্ট করোনা পজিটিভ আসে। এরপরই সংক্রমণ রুখতে তাদের ওই পিআরটিআই কোভিড কেয়ারে কোয়ারেন্টিন করে রাখা হয়।

জানা গেছে, তাদের মধ্যে মোট ৩১ জন ওই করোনা হাসপাতালের জানালা ভেঙে পুলিশের নজর এড়িয়ে পাইপ বেয়ে নীচে নেমে আসেন এবং সেখান থেকে পালিয়ে যান। এর আগেও বেশ কয়েকজন রোগী পালানোর চেষ্টা করায় আগেভাগেই হাসপাতালের গেটে পুলিশি পাহারাও বসানো ছিল।

তবে এবার সবার অলক্ষ্যে কীভাবে একসঙ্গে এত লোক পালিয়ে গেল তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। কোভিড সেন্টারে নিরাপত্তার গাফিলতি নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

হাসপাতালের সদর গেটের বদলে পেছনের জানালা ভেঙে পাইপ বেয়ে নীচে নেমে পালিয়ে যান ওই ৩১ জন করোনা রোগী। পরে হাসপাতাকের অনেক বেড খালি থাকায় বিষয়টি নজরে আসে। শুরু হয় ব্যাপক তল্লাশি। যদিও এখন পর্যন্ত নিখোঁজ করোনা আক্রান্তদের খোঁজ মেলেনি। এদিকে ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে রাজ্যজুড়ে। রেলওয়ে স্টেশন এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়েছে। রাজ্যজুড়েও একাধিক পুলিশ বাহিনী পলাতক করোনা রোগীদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে।

সূত্র: কলকাতা টোয়েন্টিফোর

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএইচ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত