ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ৮ আষাঢ় ১৪২৮ আপডেট : ১৩ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১৩ মে ২০২১, ১১:৩৯

প্রিন্ট

ইসরায়েলের পক্ষেই কথা বলছেন বাইডেন!

ইসরায়েলের পক্ষেই কথা বলছেন বাইডেন!
ফাইল ফটো

জার্নাল ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, হাজারো রকেট ছুড়লে ইসরায়েলের আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে। গাজা উপত্যকায় চলমান উত্তেজনার প্রেক্ষিতে সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেছেন তিনি।

বাইডেন বলেছেন, যখন আপনার অঞ্চলে হাজার হাজার রকেট উড়ে আসবে, তখন আপনার আত্মরক্ষা অধিকার রয়েছে। খবর আনাদুলু এজেন্সির।

স্থানীয় সময় বুধবার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে কথা বলেছেন বাইডেন। এরপরই এমন মন্তব্য করলেন তিনি। তবে বাইডেন আশা প্রকাশ করেন, অল্প সময়ের মধ্যেই ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ইসরায়েলিদের সশস্ত্র সংঘাতের অবসান ঘটবে।

এদিকে টুইটে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে তার কথোপকথনের বিষয় উল্লেখ করে বলেন, ‘জেরুজালেম, পশ্চিম তীর ও গাজার পরিস্থিতি নিয়ে আমি প্রেসিডেন্ট আব্বাসের সঙ্গে কথা বলেছি। নিহত ব্যক্তিদের প্রতি আমি সমবেদনা জানিয়েছি। চলমান উত্তেজনা নিরসনে রকেট হামলার বন্ধ করার ওপর গুরুত্ব দিয়েছি।’

গেল সোমবার থেকে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় অব্যাহত ইসরায়েলের বিমান হামলায় এ পর্যন্ত ১৬ শিশুসহ ৬৫ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরো ৩৬৫ জন। আল জাজিরার খবরে এসব তথ্য পাওয়া যায়।

এছাড়া হামাসের হামলায় অন্তত ১০০ জন ইসরায়েলি আহত হয়েছেন। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী বলছে, ইসরায়েলের বিভিন্ন স্থানে প্রায় দেড় হাজার রকেট হামলা চালিয়েছে গাজা।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসরায়েলের আরব-সংখ্যাগরিষ্ঠ লড শহরে অবস্থিত আল-নূর মসজিদে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলিরা। এই শহরে জরুরি অবস্থা জারি করেছে ইসরায়েল সরকার। এদিকে বিমান হামলা চালিয়ে গাজার একটি বহুতল ভবন ধ্বংস করে দিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। নগরীর ১৪ তলা বিশিষ্ট শরওক টাওয়ারে বেশ কয়েকটি মিডিয়া অফিস ছিল।

এদিকে, গাজা উপত্যকায় এই হামলা-আক্রমণ বন্ধের আপাতত কোনও পরিকল্পনা নেই বলে ঘোষণা দিয়েছেন ইসরায়েলি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গান্টজ। তিনি বলেছেন, ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী হামলা অব্যাহত রাখবে এবং দীর্ঘমেয়াদে পূর্ণ নীরবতা নিয়ে আসবে।

অপরদিকে, ইসরায়েলি হামলার বিষয়ে টেলিফোনে কথা বলেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ডেইলি সাবাহর প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার তুরস্কের প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

পুতিনের সঙ্গে ফোনালাপে জেরুজালেম, গাজা ও আল-আকসা মসজিদে ইসরায়েলি হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেছেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবশ্যই ইসরায়েলকে থামাতে এবং পাল্টা শিক্ষা দিতে হবে।

আঙ্কারা ইতোমধ্যে এ নিয়ে কাজ শুরু করেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই বিবৃতিতে। এরদোয়ান বলেছেন, ফিলিস্তিন ইস্যুতে উত্তেজনা আরো বেড়ে যাওয়ার আগেই জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের হস্তক্ষেপ জরুরি এবং পরিষদকে অবশ্যই ইসরায়েলের বিষয়ে পরিষ্কার ও সিদ্ধান্তমূলক বিবৃতি দিতে হবে।

ফিলিস্তিনিদের রক্ষায় ওই অঞ্চলে আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী পাঠানোর আহ্বান জানিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট। ২০১৮ সাল থেকেই অবশ্য এই প্রস্তাব দিয়ে আসছে তুরস্ক।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত