ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ২ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:৩৩

প্রিন্ট

আগাম নির্বাচন প্রশ্নে পার্লামেন্টে ফের ধরাশায়ী বরিস

আগাম নির্বাচন প্রশ্নে পার্লামেন্টে ফের ধরাশায়ী বরিস
অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের আনা আগাম নির্বাচনের প্রস্তাবটি ফের প্রত্যাখ্যান করেছেন ব্রিটিশ এমপিরা। এর আগেও তিনি আগাম নির্বাচানের জন্য চেষ্টা চলিয়ে ব্যর্থ হন। এছাড়া চুক্তি বিহীন ব্রেক্সিটের পক্ষো আনা তার আরও কয়েকটি প্রচেষ্টাতেও তিনি পরাজিত হয়েছিলেন।

সোমবার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সে আগাম নির্বাচনের ওপর আরো একটি প্রস্তাব এনেছিলেন প্রধানমন্ত্রী বরিস। পার্লামেন্টের ২৯৩ জন সাংসদ এ প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছি, বিপক্ষে ভোট পড়ে ৪৬টি। আর ভোট দেয়া থেকে বিরত ছিলেন ৩০৩ জন এমপি। ফলে প্রয়োজনীয় সংখ্যক ভোট না পাওয়ায় সোমবার প্রধানমন্ত্রীর আগাম নির্বাচনের প্রস্তাবটি বাতিল হয়ে যায়।

এদিকে মঙ্গলবার থেকে পাঁচ সপ্তাহের জন্য মুলতবি করা হয়েছে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের অধিবেশন। আগামী ১৪ অক্টোবর ফের চালু হবে পার্লামেন্ট। যদিও সরকারের এই পার্লামেন্ট মুলতবি করার সরকারি সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিরোধী লেবার দলের বেশ কয়েকজন সাংসদকে সোচ্চার হতে দেখা যায়। তারা হাউস অফ কমন্সের স্পিকার জন বার্কোকে আটকানোরও চেষ্টা করেন। পার্লামেন্ট মুলতবির সমালোচনা করে লেবার নেতা জন করবি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বরিস ব্রেক্সিট নিয়ে তার পরিকল্পনার ওপর আলোচনা এড়ানোর জন্যই পার্লামেন্ট মুলতবি করেছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত বুধবার রাতে (৪ সেপ্টেম্বর) ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে দুই দফা পরাজিত হয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। দেশে আগাম নির্বাচন নিয়ে হাউজ অব কমন্সে প্রধানমন্ত্রীর আনীত প্রস্তাবটি দুই-তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় বাতিল হয়ে যায় এর আগে মঙ্গলবার রাতে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট সংক্রাত এক প্রস্তাবে পরাজিত হন তিনি। যার জের ধরে পরদিন ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের ২১ বিদ্রোহ এমপিকে বরখাস্ত করেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তার এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে পরে পদত্যাগ করেন ব্রিটেনের চাকরি ও অবসরভাতা বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাম্বার রুড।

সূত্র: বিবিসি

এমএ/

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত