ঢাকা, সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২২:৪৪

প্রিন্ট

‘মরিয়া’ শরণার্থী শিবির যেন নরক

‘মরিয়া’ শরণার্থী শিবির যেন নরক
ছবি: সংগৃহীত
ফিচার ডেস্ক

‘মরিয়া’ শরণার্থী শিবিরের ধারণ ক্ষমতা তিন হাজার। তবে, বর্তমানে সেখানে দশহাজারের মতো শরণার্থী কোনরকমে বসবাস করছেন। এই শিবিরটি হচ্ছে গ্রিসের সবচেয়ে বড় শরণার্থী অভ্যর্থনা এবং চিহ্নিতকরণ কেন্দ্র। মরিয়াতে বসবাসরত একটি বড় অংশ অত্যন্ত অসহায় অবস্থায় রয়েছেন। তাদের অনেকের দ্রুত চিকিৎসা সহায়তা দরকার।

আগস্ট মাসে তিন হাজারের মতো শরণার্থী নৌকায় করে লেসবসে পৌঁছেছেন। তাদের মধ্যে ৪০ জন একটি নৌকায় করে সেখানে পৌঁছান যারা সবই আফগানিস্তান থেকে এসেছেন। সেই আগতদের মধ্যে ২২ শিশু এবং নারীকে একটি ট্রানজিট ক্যাম্পে নেয়া হয়। লাইটহাউস নামের একটি বেসরকারি উন্নয়নসংস্থার স্বেচ্ছাসেবীরা নতুন আগতদের খাদ্য এবং খাবার পানি দেন।

‘মরিয়া’ শিবিরে কোন মতে তৈরি চুলায় রুটি বানাচ্ছেন আফগান নারীরা। দেশটির ঐহিত্যবাহী এই রুটির একেকটি এক ইউরোতে অন্য শরণার্থীদের কাছে বিক্রি করেন অনেকে।

‘মরিয়া’ শিবিরে দীর্ঘদিন ধরে থাকা শরণার্থীরা সময় কাটাতে এরকম নানা কাজের সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ত রাখছেন। ‘মরিয়া’ শিবিরে থাকা অসংখ্য শরণার্থীর চিকিৎসা সেবা প্রয়োজন। তাই ‘ডক্টরস উইদাউট বর্ডার্সের’ উদ্যোগে শিবিরটির বাইরের অংশে শুধুমাত্র জরুরী রোগীদের জন্য একটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছে।

মরিয়াতে বর্তমানে সাড়ে আট হাজারের বেশি শরণার্থী আটকে আছেন। প্রতিদিন খাবার আর বিশুদ্ধ পানির জন্য দীর্ঘসময় লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয় তাদের।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত