ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭ আপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৪ জুলাই ২০২০, ১৬:৫২

প্রিন্ট

ফ্রেঞ্চ ওপেনে থাকবে ২০ হাজার দর্শক

ফ্রেঞ্চ ওপেনে থাকবে ২০ হাজার দর্শক
স্পোর্টস ডেস্ক

করোনাভাইরাস মহামারি সত্ত্বেও পিছিয়ে যাওয়া ফ্রেঞ্চ ওপেনে প্রতিদিন ২০ হাজার সমর্থকের স্টেডিয়ামে প্রবেশের অনুমতি থাকবে বলে আয়োজক সূত্র নিশ্চিত করেছে। ফ্রেঞ্চ টেনিস ফেডারেশন (এফএফটি) আরো জানিয়েছে ফাইনাল দেখার জন্য ১০ হাজার জন স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারবেন। ফ্রান্সে যদি করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয় তবে এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।

ক্লে কোর্টের এই গ্র্যান্ড স্ল্যাম ইভেন্ট আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে ১১ অক্টোবর শেষ হবার কথা রয়েছে। আগামী ১৬ জুলাই থেকে সাধারণ জনগনের জন্য টিকেট বিক্রি শুরু হবে। এক বিবৃতিতে এফএফটি জানিয়েছে, ‘সাধারন ধারণক্ষমতার ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ দর্শক প্রতিটি স্টেডিয়ামে প্রবেশের অনুমতি পাবে। এর ফলে সরকারী স্বাস্থ্য নির্দেশনা মেনে চলা সহজ হবে।’

যদিও ঐ সময়ের করোনা পরিস্থিতির ওপর সব কিছু নির্ভর করছে। নতুন করে যদি আবারো মহামারী ছড়িয়ে পরে তবে এই সংখ্যা কমানো হতে পারে। এতে করে টিকেটের অর্থ ফেরত দিবে টুর্নামেন্ট আয়োজকরা।

করোনাভাইরাসের কারণে লকডাউন কাটিয়ে প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম হিসেবে আগামী ২৪ আগস্ট থেকে নিউইয়র্কে শুরু হচ্ছে ইউএস ওপেন। কিন্তু ইতোমধ্যেই ঘোষণা এসেছে বছরের তৃতীয় এই গ্র্যান্ড স্ল্যামটি আয়োজিত হবে দর্শকশুন্য স্টেডিয়ামে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথমবারের মত বন্ধ হয়ে গেছে উইম্বলডন।

ঐতিহ্যগত ভাবে মে মাসের শেষে শুরু হবার কথা থাকলেও করোনার কারণে ফ্রেঞ্চ ওপেন পিছিয়ে দিতে বাধ্য হয় আয়োজক কমিটি। গত ১৭ মার্চ থেকে ফ্রান্সে দুই মাসের লকডাউন শুরু হয়েছিল।

বিশ্বজুড়ে মার্চ থেকে বন্ধ থাকা এটিপি ও ডব্লিউটিএ আগস্টে পুনরায় শুরু হচ্ছে। এর আগে অবশ্য বেশ কয়েকটি প্রদর্শনী টুর্নামেন্ট আয়োজিত হবে। ইতোমধ্যেই করোনা সংকট কাটিয়ে নোভাক জকোভিচের আদ্রিয়া ট্যুরের মাধ্যমে প্রথমবারের মত প্রদর্শনী টেনিস কোর্টে গড়িয়েছিল। যদিও বিশ্বের শীর্ষ খেলোয়াড়সহ আরো বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় শেষ পর্যন্ত প্রদর্শনী টুর্নামেন্টটি বাতিল করতে বাধ্য হয় আয়োজকরা।

ফ্রেঞ্চ ওপেনে দর্শকের উপস্থিতি থাকলেও তাদেরকে অবশ্যই বেশ কিছু স্বাস্থ্যবিধি মেনেই স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি প্রতিটি দর্শককে অবশ্যই মাস্ক পড়ে স্টেডিয়ামে ঢুকতে হবে। সর্বোচ্চ চারজন একসাথে বসার সুযোগ পাবে। প্রতিটি সমর্থক গ্রুপের মাঝে একটি আসন খালি রাখতে হবে।

মূল ড্রয়ের এক সপ্তাহ আগে রোলা গ্যাঁরো তাদের কোয়ালিফাইং ইভেন্ট চালু রাখবে। যদিও ইউএস ওপেনে এবার এই ইভেন্টটি বন্ধ রাখা হয়েছে। পুরুষ বিভাগে স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদাল ও নারী বিভাগে অস্ট্রেলিয়ান এ্যাশলে বার্টি বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ফেবারিট হিসেবেই কোর্টে নামবেন।

করোনাভাইরাসের কারণে ফ্রান্সে প্রায় ৩০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৬৫ হাজার।

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত