ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে English

প্রকাশ : ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৯:২৫

প্রিন্ট

চীনফেরত রহিমকে ১৪ দিন আলাদা থাকার পরামর্শ

চীনফেরত রহিমকে ১৪ দিন আলাদা থাকার পরামর্শ
বরিশাল প্রতিনিধি

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার অশোকসেন গ্রামে চীন থেকে আসা আব্দুর রহিম মোল্লাকে (২৮) রোববার সকালে উপজেলা হাসপাতালের আইসুলেশন ইউনিটে (পরামর্শ কেন্দ্র) চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। রহিমকে তার পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে ১৪ দিন আলাদা থাকার নির্দেশনাও দেয়া হয়।

এ সময় হাসপাতালের চিকিৎসক ফয়সাল ফাহাদ, স্যানিটারী ইন্সপেক্টর সুকলাল সিকদার ও থানার এসআই শাজাহান মিয়া আইসুলেশন ইউনিটে উপস্থিত ছিলেন।

রহিম ওই গ্রামের রুস্তুম আলী মোল্লার ছেলে এবং রহিম চীনের জেন জিয়াং সিটিতে গত চার বছর যাবৎ বসবাস করার পাশাপাশি জিয়াং সু ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজিতে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এর শেষ বর্ষের ছাত্র।

আগৈলঝাড়া থানার ওসি আফজাল হোসেন বলেন, রহিম মোল্লার ছেলে চীন থেকে বাড়ি ফেরার খবর পেয়ে গত শনিবার চিকিৎসকসহ আমি (ওসি) তার বাড়ি যাই। ওই সময়ে রহিম বাড়িতে অবস্থান না করায় তার পিতা-মাতার সাথে কথা বলে আইসুলেশন কেন্দ্রে যাবার পরামর্শ দেয়া হয়।

হাসপাতালের চিকিৎসক ফয়সাল ফাহাদ জানান, রহিমের শরীরে করোনাভাইরাসের কোন লক্ষণ নেই। তারপরও সাবধানতা অবলম্বন করতে আইসুলেশন কেন্দ্র থেকে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত রহিমকে সবসময় মাস্ক ব্যবহারসহ সর্তকতার সাথে চলাচলের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। পাশপাপশি রহিমকে তার পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে ১৪ দিন আলাদা থাকার নির্দেশনাও দেয়া হয়।

রহিমের বাবা রুস্তুম আলী মোল্লা বলেন, গত ৭ ফব্রুয়ারি চীন থেকে বাংলাদেশে আসে রহিম। ওই দিন ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দের নামার পর আইইডিসিআর ল্যাবরেটরিতে রহিমের করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয় বলে জানিয়েছে তার ছেলে (রহিম)। পরীক্ষায় তার শরীরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তর কোন লক্ষণ পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত