ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ আপডেট : ৮ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ৩১ মার্চ ২০২০, ১১:১৯

প্রিন্ট

বাড়ছে ছুটির মেয়াদ, যা বললেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

বাড়ছে ছুটির মেয়াদ, যা বললেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

Evaly

জার্নাল ডেস্ক

বিশ্বজুড়েই চলছে করোনাভাইরাসের তাণ্ডব। প্রাণঘাতী এ ভাইরাস প্রতিরোধের উপায় হিসেবে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ লকডাউন নীতি হাতে নিয়েছে। এদিকে বিশ্বব্যাপী বিস্তৃত কোভিড-১৯-এর বিস্তার থেকে দেশবাসীকে রক্ষা করতে সাধারণ ছুটি আরও বাড়ানো হতে পারে।

আরো পড়ুন: আরও ১০ দিন বাড়ছে ছুটি!​

ইতিপূর্বে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ১০ দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হলেও তা বাড়িয়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত করা হতে পারে বলে সরকারসংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে। তবে ছুটি সংক্রান্ত সবকিছুই পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে।

এদিকে আজ মঙ্গলবার করোনাভাইরাস প্রতিরোধের লক্ষ্যে চলমান কার্যক্রম সমন্বয় করতে ৬৪ জেলার সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বেশকিছু দিকনির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আরো পড়ুন: প্রাথমিকসহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ছে ঈদ পর্যন্ত!

এসময় সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী চলমান সাধারণ ছুটি আরও বাড়ানোর ইঙ্গিতও দেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দেশে কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাসের বিস্তার কতটা ঘটেছে বা ঘটছে সে বিষয়ে নিবিড় পর্যবেক্ষণ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি প্রতিদিনই সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং বিভাগের কর্তব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলছেন। সর্বশেষ আপডেট জানছেন, দিচ্ছেন প্রয়োজনীয় নির্দেশনা। একাধিক বিশেষজ্ঞের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব পরিস্থিতিও পর্যালোচনা করছেন। পরিস্থিতির অন্যান্য বিশ্লেষণের ওপর নির্ভর করে ছুটি বাড়ানো হতে পারে।

আরো পড়ুন: ছুটি বাড়ার বিষয়ে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘পরিস্থিতি বিবেচনায় ছুটি হয়তো বাড়তে পারে। তবে এ বিষয়ে এখনো আমরা জানি না।’

সূত্রগুলো জানায়, প্রথমে আরও সাত দিন এই ছুটি বাড়তে পারে। সে ক্ষেত্রে ১১ তারিখ পর্যন্ত ছুটি বাড়ানো হতে পারে। পরে প্রয়োজন অনুযায়ী পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে।

আরো পড়ুন: করোনায় বন্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন নিয়ে আদেশ জারি​

এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জানিয়েছেন, ছুটি বাড়া বা না বাড়া পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নেবেন। মন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য বিভাগ করোনা বিষয়ক পুরো পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

বাংলাদেশ জার্নাল/ওয়াইএ

shopno
  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
best