ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ আপডেট : ৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ৩১ মার্চ ২০২০, ১৮:৫৬

প্রিন্ট

বগুড়ায়

পিয়াল হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, গ্রেপ্তার ৩

পিয়াল হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, গ্রেপ্তার  ৩

Evaly

বগুড়া প্রতিনিধি

বগুড়ায় সদর উপজেলায় সিএনজি চালক আজগর আলী পিয়াল (২৮) হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করেছে সদর থানা পুলিশ। মাদক সেবনের কথা বলে তাকে কবরস্থানে ডেকে নিয়ে যায় তার কাছের দুই বন্ধু।

পরে তাকে ঐ কবরস্থানেই মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে অটো রিকশা নিয়ে পালিয়ে যায় হত্যাকারীরা। পিয়াল হত্যার সঙ্গে জড়িত তার দুই বন্ধুসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে সদর থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে বগুড়া সদর থানার সূত্রে জানা যায় গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন বগুড়া সদরের ছোট কুমিড়া গ্রামের মৃত জমির উদ্দিনের ছেলে হান্নান (৩২), একই গ্রামের দুলু খানের ছেলে রাশেদ (৪০) ও দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট থানার নয়াপাড়া গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে নুরুন্নবী ওরফে মুন্না (২৫)।

গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে রাশেদ ও হান্নান জিঙ্গাসাবাদে জানায়, গত ২১ মার্চ সন্ধ্যার পর মাদক সেবনের কথা বলে তারা আজগর আলী পিয়ালকে অটোরিকশাসহ ছোট কুমিড়া গ্রামের পিছনে কবরস্থানে ডেকে নেয়। সেখানে ৩জন এক সঙ্গে মাদক সেবন করার সময় পিয়ালের মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে তাকে হত্যা করা হয়।

এরপর তার অটোরিকশা নিয়ে দুইজন পালিয়ে যায়। ঐ রাতেই অটোরিকশাটি দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাটে মুন্নার কাছে দেয় বিক্রির জন্য।

উলে­খ্য, গত ২১ মার্চ সিএনজি চালক আজগর আলী পিয়াল নিখোঁজ হওয়ার পর ২৮ মার্চ শনিবার সন্ধ্যায় পুলিশ ছোট কুমিড়া গ্রামের কবরস্থানে একটি পুরাতন কবর থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা মহিদুল ইসলাম ২৮ মার্চ রাতে সদর থানায় মামলা করেন।

বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বাংলাদেশ জার্নলকে বলেন, রাশেদ ও হান্নানের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ঘোড়াঘাট থেকে মুন্নাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে অটোরিকশাটি এখনও উদ্ধার করা যায়নি।

বাংলাদেশ জার্নাল/ এমএম

shopno
  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত
best