ঢাকা, রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৫ আশ্বিন ১৪২৭ আপডেট : ৬ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৩ মে ২০২০, ১৯:৫০

প্রিন্ট

ঈদে কোলাকুলি না করতে নির্দেশনা

ঈদে কোলাকুলি না করতে নির্দেশনা
ফাইল ছবি
রাজশাহী প্রতিনিধি

রাজশাহীতে ঈদের নামাজ শেষে কোলাকুলি না করতেও সরকারিভাবে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। শনিবার সকালে জেলা প্রশাসন থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অলিখিত নির্দেশনায় বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস ঠেকাতে ঈদে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। ঈদের সপ্তাহজুড়ে রাজশাহী শহর ছাড়াও জেলার উপজেলা পর্যায়ে থাকবে নজরদারি। অব্যাহত থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালত, পুলিশ টহল, সেনাবাহিনীর বিশেষ টহল। ঈদের দিন সবাইকে বাড়ি থেকে ওজু করে আসতে হবে। জায়নামাজ সাথে আনতে হবে। মসজিদ ফটকে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখতের হবে। এবার মসজিদ কমিটির নির্ধারিত সময় অনুযায়ী রাজশাহীতে ঈদের নামাজ আদায় করা হবে। প্রতিটি মসজিদ কমিটি ঈদের নামাজের সময় নির্ধারণ করবে। এদিন গণপরিবহন চলবে না।

রাজশাহী নগরীর হযরত শাহ মখদুম (রহ.) দরগাহ মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায়। ইমামতি করবেন মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব মাওলানা মো. মোস্তাফিজুর রহমান। এখানে ঈদের দ্বিতীয় জামাত হবে সকাল ৯টায়। তখন ইমামতি করবেন মসজিদের সহকারী ইমাম হাফেজ রেজাউল করিম।

নগরীর রানীবাজার জামে মসজিদে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে। এখানে ইমামতি করবেন মসজিদের খতিব মাওলানা শাহাদত আলী। তিনিই প্রতিবছর রাজশাহীর হযরত শাহ মখদুম (রহ.) কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ঈদের নামাজে ইমামতি করে থাকেন।

শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে জেলা প্রশাসক হামিদুল হক লেখেন, প্রাইভেট গাড়ি নিয়ে ঢাকার বাইরের জেলায় আসা-যাওয়ার কোন সরকারি সিদ্ধান্ত পাওয়া যায়নি। তাই কাউকে রাজশাহীতে না আসার অনুরোধ করা হলো।

নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দস জানিয়েছেন, যে অবস্থা চলছে, তেমনটিই থাকবে। ঈদের সময় বাড়তি নজরদারিতে রাখা হবে পুরো নগরী। শনিবার থেকে দিনের সাথে রাতেও পুলিশ টহল বৃদ্ধি করা হবে। প্রবেশ পথগুলোতে আগের চেয়ে বেশি সতর্ক অবস্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জেলা পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম জানান, ঈদের সময় আগের মতই অবস্থা থাকবে জেলা পুলিশ। চেকপোস্টগুলোতে আরো সতর্ক অবস্থানে রাখা হচ্ছে পুলিশকে। এছাড়াও থানার পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত