ঢাকা, শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ৯ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ২৩ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮:৫৮

প্রিন্ট

রোহিঙ্গা বহর

ভাসানচরে উৎসবের আমেজে স্বস্তির নিঃশ্বাস

ভাসানচরে উৎসবের আমেজে স্বস্তির নিঃশ্বাস
ভাসানচরে স্বাগত জানানো হয় রোহিঙ্গাদের। ছবি: সংগ্রহ।

নোয়াখালী প্রতিনিধি

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের জন্য প্রায় ৩১০০ কোটি টাকায় নির্মিত অস্থায়ী আবাসস্থলে এখন উৎসের আমেজ। শুক্রবার দুপুরে রোহিঙ্গাদের প্রথম বহর সেখানে পৌঁছে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে। তাদের বরণ করে নেয় কর্তৃপক্ষ।

করোনা মহামারির কারণে ভাসানচরে আসার পর প্রথমে প্রত্যেকের শরীরের তাপমাত্রা মাপা হয়। এরপর তাদের ভালোমত হাত ধুয়ে জেটি থেকে গাড়িতে তোলা হয়। পরে তাদের নিয়ে যাওয়া হয় সুসজ্জিত আবাসস্থলে দিকে।

ভাসানচরে যাওয়া রোহিঙ্গা শিশুদের চলাচলে সাহায্য করেন নৌবাহিনীর সদস্যরা। রোহিঙ্গারা সেখানে পৌঁছে স্বস্তি প্রকাশ করেন। তাদের মধ্যে অনেকটা উৎসবের আমেজ দেখা গেছে। বিশেষ করে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা বিশিষ্ট আবাসস্থল পেয়ে তাদের হাসিখুশি দেখা গেছে।

ভাসানচরে পৌঁছার পর রোহিঙ্গারা। ছবি: সংগ্রহ।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্প থেকে রোহিঙ্গাদের প্রথম দল রওনা দেয় চট্টগ্রামে। সেখান থেকে শুক্রবার সকালে ৮টি জাহাজে করে এক হাজার ৬৪২ রোহিঙ্গা রওনা হন ভাসানচরে। যেখানে আগে থেকেই রোহিঙ্গাদের স্বাগত জানাতে নানা রঙের ব্যানার ফেস্টুন লাগানো হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যানার ফেস্টুনও সেখানে রয়েছে। সেসবে শেখ হাসিনাকে মাদার অব হিউমিনিটি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

ভাসানচরে পৌঁছার পর রোহিঙ্গারা। ছবি: সংগ্রহ।

ভাসানচর দ্বীপটি বাসস্থানের উপযোগী করা, অবকাঠামো উন্নয়ন, বনায়ন এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে নৌবাহিনীকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছিল। রোহিঙ্গাদের জন্য আধুনিক বাসস্থান ছাড়াও বেসামরিক প্রশাসনের প্রশাসনিক ও আবাসিক ভবন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থার ভবন, মসজিদ, স্কুল হিসেবে ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় ভবন, হাসপাতাল, ক্লিনিক ও খেলার মাঠ নির্মাণ করা হয়েছে।

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্বাগত জানানো হয়। ছবি: সংগ্রহ।

বাংলাদেশ জার্নাল/এনএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত