ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ৩১ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৩৫ মিনিট আগে

প্রকাশ : ০৪ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৩৪

প্রিন্ট

আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মেয়রের মামলা

আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মেয়রের মামলা
ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতাসহ দুইজনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছেন নাসিক মেয়র ড. সেলিনা হায়াৎ আইভী। নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা ও কানাডা প্রবাসী প্রদীপ দাসকে আসামী করা হয়েছে এ মামলায়।

সোমবার দুপুরে মেয়র আইভীর সাইবার ট্র্যাইবুন্যালে ওই মামলার আবেদন করেন। আদালত আইভীর আর্জি গ্রহণ করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডিকে তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছেন। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি মামলার শুনানী অনুষ্ঠিত হবে।

গত ২৩ নভেম্বর ‘নারায়ণগঞ্জ মেয়র আইভীকে খোকন সাহা: হাজার কোটি টাকা মূল্যের হিন্দুদের দেবোত্তর সম্পত্তি ফিরিয়ে দিন ও ১ হাজার কোটি টাকার মূল্যের হিন্দুদের দেবোত্তর সম্পত্তি মেয়র আইভীর পরিবারের দখলে। মন্দিরের সেবায়েত গুম। আতঙ্কে হিন্দুরা’ শীর্ষক শিরোনামে ভিডিও আপলোড হয়। ওই ভিডিওতে খোকন সাহাও বক্তব্য রাখেন। মূলত প্রদীপ এ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল করে।

খোকন সাহা বলেন, মেয়র আইভী হিন্দুদের ভোট নেয়। নিয়া কালীপূজা করে সিন্দুর দিয়া কালী মাকে প্রণাম করে। আমি হিন্দু সমাজকে একতাবদ্ধ করার চেষ্টা করছি এবং বলেছি যারা দেবোত্তর সম্পত্তি গ্রাস করে তাদেরকে আপনারা ভোট দিবেন না। যারা দেবোত্তর সম্পত্তি খায় তাদের যেন জননেত্রী শেখ হাসিনা নমিনেশন না দেয়। হিন্দু সম্প্রদায়কে বলছি যারা দেবোত্তর সম্পত্তি খায় তাদেরকে আপনারা ভোট দিবেন না। প্রকৃত সত্য হলো আগামী মেয়র নির্বাচনকে সামনে রেখে ভাবমূর্তি নষ্ট করতে খোকন সাহা মিথ্যা বানোয়াট বিভ্রান্তকর মানহানিকর বক্তব্য প্রচার করছে। এতে মেয়র ও রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, মেয়র আইভী একজন উপমন্ত্রীর মর্যাদাপ্রাপ্ত। ১২ আগস্ট প্রদীপ দাসের পরিচালনাধীন ‘হিন্দুস লাইভস মেটার্স’ নামের ইউটিউব চ্যানেলে বাংলাদেশে ইসলামী মৌলবাদীদের হাতে নির্যাতিত নিপীড়িত হিন্দু সম্প্রদায়ের খবর প্রচার হচ্ছে।

বাংলাদেশে বিগত ৫০ বছরে প্রায় ৪০ মিলিয়ন হিন্দু নিধন করা হয়েছে। এটা ধীর প্রক্রিয়ায় গণহত্যা। প্রকৃতপক্ষে এ চ্যানেলের মূল উদ্দেশ্য এসব প্রচার করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট ও দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করা।

উল্লেখ্য, কথিত সম্পত্তি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ আদালতে বিচারাধীন মামলায় আইভী কোন পক্ষ না। ফলে প্রদীপ ও খোকন সাহা মিলে মেয়রকে অপমান অপদস্ত করতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বক্তব্য দিয়ে ডিজিটাল আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ করছেন।

বাংলাদেশ জার্নাল/এইচকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত