ঢাকা, সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৪ মাঘ ১৪২৭ আপডেট : ১০ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৪ জানুয়ারি ২০২১, ২১:০৪

প্রিন্ট

অবশেষে ধরা প্রাথমিকের সেই শিক্ষক

প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষক কারাগারে
ছবি: প্রতীকী

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী কাম দপ্তরী নিয়োগ দেয়ার নামে দেড় লক্ষ টাকা উৎকোচ গ্রহণ ও আত্মসাতের মামলায় প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষক মো. সাইফুল্লাহ কে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ কলাপাড়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শোভন শাহরিয়ার’র আদালত এ আদেশ প্রদান করেন।

এর আগে উপজেলার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের ৫৫নং ফুলবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মো. সাইফুল্লাহ (বর্তমানে আমিরাবাদ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত) ও ডালবুগঞ্জ ইউপি সদস্য নুরুজ্জামান হাওলাদার বাদীর সাথে আপোষ করার শর্তে আদালত থেকে শর্ত সাপেক্ষে জামিন লাভ করেন।

বৃহস্পতিবার মামলার ধার্য তারিখে আসামীরা বাদীর সাথে আপোষ না করায় প্রধান শিক্ষক মো. সাইফুল্লাহ’র স্থায়ী জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে প্রেরণ ও আসামী নুরুজ্জামানকে ফের আপোষ শর্তে অন্তর্বর্তী সময়ের জন্য জামিন দেন বিজ্ঞ আদালত।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের ৫৫নং ফুলবুনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সাইফুল্লাহ, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. মঞ্জু মোড়ল ও ইউপি সদস্য নুরুজ্জামান হাওলাদার বাদী রেজাকে নৈশ প্রহরী কাম দপ্তরী পদে নিয়োগের জন্য দেড় লক্ষ টাকা উৎকোচ গ্রহণ করেন। এরপর চাকুরী কিংবা টাকা ফেরত না দেয়ায় প্রতিকার চেয়ে ইউএনও, কলাপাড়া বরাবর অভিযোগ দেন রেজা। এতে ইউএনও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। তদন্তে বাদীর অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় ইউএনও ভুক্তভোগী রেজাকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেন।

আদালত সূত্র আরও জানায়, মামলার অপর আসামী বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মো. মঞ্জু মোড়ল (বর্তমানে বিদেশে পলাতক) এর বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত