ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭ আপডেট : ৫ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ১৬:৫৭

প্রিন্ট

স্বেচ্ছায় নদীর দখল ছেড়ে না দিলে কঠোর ব্যবস্থা

স্বেচ্ছায় নদীর দখল ছেড়ে না দিলে কঠোর ব্যবস্থা
খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। ফাইল ফটো

বরিশাল প্রতিনিধি

নদী না বাঁচলে বাংলাদেশ বাঁচবে না। তাই স্বেচ্ছায় সন্মানের সাথে নদীর দখল ছেড়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী মো. খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। এই আহ্বানে সাড়া না দিলে নদী দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটায় বরিশাল সার্কিট হাউজে ‘বরিশাল বিভাগের নদীসমূহের নাব্যতা বৃদ্ধি, জলাবদ্ধতা হ্রাস, জলাভূমি পুনরুদ্ধার, সেচ ও ল্যান্ডিং সুবিধাদী বৃদ্ধি করে নদী ব্যবস্থাপনার সম্ভাব্যতা যাচাই’ শীর্ষক সমীক্ষার ওপর এক কর্মশলায় সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বরিশালের কীর্তনখোলা নদীসহ সারাদেশে অবৈধভাবে দখল করে রাখা নদীগুলো মুক্ত করা হবে। ঢাকা, নারায়নগঞ্জ ও চট্টগ্রামে নদীর অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ অভিযান চলছে। পর্যায়ক্রমে দেশের সব নদীর অবৈধ দখলকারীদের উচ্ছেদ করা হবে।

সারাদেশে বিভিন্ন নদীর ৬০ হাজার অবৈধ দখলদার রয়েছে। তাদের মধ্যে ইতিমধ্যে ২০ হাজার অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করা হয়েছে বলেও জানান খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

তিনি আরও বলেন, নদী দখলমুক্ত করতে বিভিন্ন যন্ত্রপাতি সংগ্রহ করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে বেশকিছু যন্ত্রপাতি সংগ্রহ হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে।

বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকারের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সিটি মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ, বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক, বিআইডব্লিউটিএ’র ড্রেজিং বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম তালুকদার, বরিশালের জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার ও পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন।

এছাড়া কর্মশালায় বরিশাল বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, পরিবেশবাদী সংগঠন ও গণমাধ্যমকর্মীরা বক্তব্য রাখেন। বিভাগীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় বিআইডব্লিউটিএ এই কর্মশালার আয়োজন করে।

বাংলাদেশ জার্নাল/এসকে

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত