ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ৩০ বৈশাখ ১৪২৮ আপডেট : ৬ মিনিট আগে

প্রকাশ : ১০ এপ্রিল ২০২১, ২০:০৮

প্রিন্ট

মাস্কেই দায়িত্ব শেষ, বালাই নেই অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধির

মাস্কেই দায়িত্ব শেষ, বালাই নেই অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধির

নিজস্ব প্রতিবেদক

চলতি মাসে করোনা পরিস্থিতির ফের অবনতি হয়েছে। আশঙ্কাজনকহারে বেড়েছে মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা। ভাইরাসটির রাশ টানতে আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে ৭ দিন পরিপূর্ণভাবে কার্যকর করা হবে লকডাউন।

এদিকে কঠোর লকডাউনের আগে বৈশাখীর কেনাকাটার হিড়িক পড়েছে রাজধানীর ফুটপাত, বিপণিবিতান ও শপিংমলে। এছাড়া দেখা যায়, অনেকেই ঈদের আগাম কেনাকাটায় ব্যাস্ত। তবে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার শর্তে ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত শপিংমল ও দোকানপাট খোলার নির্দেশনা থাকলেও সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় মুখে মাস্ক থাকলেও সামাজিক দূরত্বের কোন নিয়মই মানা হচ্ছে না।

এ ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণে দিন দিন দেশের করোনা পরিস্থিতির অবনতি হলেও তা যেন নাড়া দিচ্ছে না সাধারণ মানুষকে। ভিড় ঠেলে প্রয়োজনীয় কেনাকাটা করতে বিভিন্ন দোকানে ছুটছেন ক্রেতারা। এদের মুখে মাস্ক থাকলেও উধাও অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা।

সরেজমিনে দেখা যায়, রাজধানীর নিউমার্কেট, গাউছিয়া, নূরজাহানসহ আশ-পাশের মার্কেটের সামনের ফুটপাতগুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। এমনকি ফুটওভার ব্রিজেও নেই হাঁটা-চলার জায়গা। গুলিস্তানের ফুটপাতগুলোতেও দেখা গেছে এমন চিত্র। তবে বেশিরভাগ মানুষ মানাছেন না সামাজিক দূরত্ব। ক্রেতা থেকে শুরু করে বিক্রেতা- কারো মধ্যেই স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা নেই।

এ প্রসঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও কোভিড-১৯ বিষয়ক জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির সদস্য অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘শুধু শুধু লকডাউন দিয়ে লাভ হবে না। লকডাউন দেয়ার মতো সক্ষমতা নেই আমাদের। মূলত গুরুত্ব দিতে হবে স্বাস্থ্যবিধি মানার ওপরে এবং সেটি শতভাগ নিশ্চিত করতে হবে। মাস্ক পরার সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধিও মানতে হবে।’

এর আগে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, আগামী ১৪ এপ্রিল (পহেলা বৈশাখ) থেকে ৭ দিন পরিপূর্ণভাবে কার্যকর করা হবে লকডাউন। লকডাউনের বিষয়ে রোববার (১১ এপ্রিল) প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। এবারের লকডাউনে জরুরি সেবা ছাড়া সব কিছু বন্ধ থাকবে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ জার্নাল/এমএম

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত