ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬ আপডেট : ১ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ১১ জুলাই ২০১৯, ২১:৫৫

প্রিন্ট

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা নিয়ে সংসদে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা নিয়ে সংসদে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক

সরকারি চাকরিতে প্রবেশে বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩৫ করার দাবিতে আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে এ বিষয়ে পরিসংখ্যান তুলে ধরে সংসদে বক্তব্য রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন: বেশি বয়সীরা পাবলিক সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষায় এমনিতেই কম পাস করে। আর বয়স যদি ৩০ থেকে বাড়িয়ে ৩৫ করা হয়, তারা আদৌ পাস করবে কিনা এটা হল প্রশ্ন।

বৃহস্পতিবার একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন: আমি কিছুদিন আগে শুনতে পেলাম চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ থেকে ৩৫ করতে হবে। নাহলে বিশাল এক আন্দোলন হবে! এটা শোনার পর আমি পিএসসির চেয়ারম্যানকে ডেকে পাঠালাম। তার কাছে বিগত তিন বছরের একটা হিসাব চাইলাম। বিগত তিন বছরে বয়সের ভিত্তিতে পিএসসির যে রেজাল্ট সেটা আমি সংসদের সামনে তুলে ধরছি।

এরপরই তিনি পিএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী পরীক্ষার্থীদের চার ক্যাটাগরিতে ভাগ করে পাসের হার সংসদের সামনে তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন: ৩৫তম বিসিএস এ যাদের বয়স ২৩ থেকে ২৫ তারা উত্তীর্ণ হয়েছে ৪০.৭ ভাগ আর যাদের বয়স ২৫ থেকে ২৭ তাদের উত্তীর্ণের ভাগ হচ্ছে ৩০.২৯। ২৭ থেকে ২৯ যাদের বয়স তাদের উত্তীর্ণের হার হচ্ছে ১৩.১ শতাংশ আর ২৯ বছরের উপরে যারা পরীক্ষা দিয়েছে তাদের পাশের হার হচ্ছে ৩.৪৫ ভাগ।

একইভাবে ৩৬তম বিসিএসের রেজাল্টের পরিসংখ্যান তুলে ধরেন সংসদ নেতা। বলেন: ৩৬তম বিসিএসে ২৩ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে যারা পরীক্ষা দিয়েছে তাদের পাসের হার ৩৭.৪৫ ভাগ। ২৫ থেকে ২৭ বছর বয়সীদের পাসের হার ৩৪.৭৮ শতাংশ। ২৭ থেকে ২৯ বছর বয়সী যারা পরীক্ষা দিয়েছে তাদের পাসের হার ১৪.২৯ শতাংশ। ২৯ বছর বয়সের বেশি যারা পাবলিক সার্ভিস কমিশন পরীক্ষা দিয়েছে তাদের পাসের হার ৩.২৩ শতাংশ।

সর্বশেষ ফল প্রকাশ হওয়া ৩৭তম বিসিএসের ফলাফল তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন: ৩৭তম বিসিএসে ২৩ থেকে ২৫ বছর বয়সে যারা পরীক্ষা দিয়েছিল পাসের হার ৪৩.৬৫ শতাংশ। ২৫ থেকে ২৭ বছরের মধ্যে যারা পরীক্ষা দিয়েছিলেন তাদের পাসের হার ২৩.৩৫ শতাংশ। ২৭ থেকে ২৯ বছর বয়সে যারা পরীক্ষা দিয়েছে তাদের পাসের হার ৭.২০ শতাংশ। আর ২৯ বছরের উপরে যারা পরীক্ষা দিয়েছিলেন তাদের পাসের হার ০.৬১ শতাংশ।

পরিসংখ্যান সংসদের সামনে তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন: তাহলে ৩৫ বছরের বয়সে যারা পরীক্ষা দেবে, ছেলেমেয়ে ঘর সংসার সামলে তাদের পরীক্ষার রেজাল্টটা কী হবে? এরপর রেজাল্ট-ট্রেনিং চাকরিতে ঢুকতে ঢুকতে ৩৭ বছর। আর তারা আদৌ পাস করবে কিনা এটা হল প্রশ্ন!

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত