ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ আপডেট : ৯ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২২ জুলাই ২০১৯, ১৪:০০

প্রিন্ট

সাংসদ আনোয়ার খানের নির্দেশে কৃষকদের থেকে ধান কেনা শুরু

সাংসদ আনোয়ার খানের নির্দেশে কৃষকদের থেকে ধান কেনা শুরু
রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

লক্ষ্মীপুর-১ রামগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য ও রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ড. আনোয়ার হোসেন খানের নির্দেশে রামগঞ্জে চলিত বছর খাদ্য বিভাগ কর্তৃক সরকারীভাবে কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয় শুরু হয়েছে।

সোমবার সকাল ১০টায় ভাদুর ইউনিয়নের কৃষকদের ধান ক্রয়ের মাধ্যমে এ কার্যক্রম শুরু হয়। এতে কৃষকদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

জানা যায়, রামগঞ্জ খাদ্য গুদামকে ঘিরে পৌর কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন দেলু এসপিসহ একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট ধান ক্রয় কমিটিকে ম্যানেজ করে তিন যুগেরও বেশী সময় ধরে একটি ভূয়া তালিকার মাধ্যমে উপজেলার বাহিরের বিভিন্ন চর অঞ্চল থেকে ট্রাকযোগে আনা ধান ক্রয় শুরু করে।

বিষয়টি বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হলে স্থানীয় এমপি ড. আনোয়ার খানের নজরে আসে এবং তিনি সংবাদের সত্যতা পেয়ে ৯০১ সদস্য বিশিষ্ট কৃষি কার্ডের তালিকা বাতিল করে ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় বরাদ্দকৃত ধানের সমবণ্টন করে ইউনিয়ন ও পৌর কৃষক কমিটির মাধ্যমে কৃষকদের নতুন তালিকা করে ধান সংগ্রহের নির্দেশ দেন।

এমপির নির্দেশ মোতাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাধ্যমে ইউনিয়ন সহকারী কৃষি অফিসাররা গত ২১ জুলাই কৃষকদের তালিকা জমা দেয়। তালিকা অনুযায়ী ধান ক্রয় শুরু করেন উপজেলা খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা।

কৃষক হারুনুর রশিদ, সিরাজ মিয়াসহ উপস্থিত কৃষকরা সরকারি নির্ধারিত মূল্যে ধান বিক্রি করতে পেরে অত্যান্ত খুশি হয়ে বলেন, ধান উৎপাদন করতে অনেক কষ্ট ও খরচ রয়েছে। বাজারে ধানের অল্প দাম হওয়ায় কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী কৃষকদের প্রতি দয়া করে ন্যায্য মূল্যে ধান বিক্রির ব্যবস্থা করে দেওয়ায় এবং এমপি আনোয়ার খানের কারণে আমরা গুদামে সুন্দরভাবে ধান দিতে পারায় প্রধানমন্ত্রী ও এমপিকে ধন্যবাদ জানাই। রামগঞ্জ উপজেলা খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা মোঃ ইসমাইল হোসেন জানান, কৃষি তালিকা অনুযায়ী আমরা ধান ক্রয় করে থাকি। কিন্তু তালিকায় অনিয়মের কারণে এমপির নির্দেশে ধান ক্রয় বন্ধ রাখি। তাই কিছুদিন বন্ধ ছিলো। আজ নতুন তালিকা পেয়ে আবার ধান ক্রয় শুরু করেছি।

এমপি ড. আনোয়ার হোসেন জানান, বাংলাদেশ কৃষি নির্ভরশীল দেশ। প্রধানমন্ত্রী কৃষকদেরকে বাঁচাতে ও উৎসাহ দিতে ভর্তুকি দিয়ে অধিক মূল্যে ধান ক্রয় করছে। সে ধান সিন্ডিকেট করে গুটি কয়েকজন কৃষকদেরকে বঞ্চিত করেছে এটা মেনে নেওয়া যায় না। তাই সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদেরকে নিয়ে বৈঠক করে পূর্বের তালিকা বাদ দিয়ে নতুনভাবে প্রকৃত কৃষকদের তালিকা করে ধান ক্রয়ের নির্দেশ দিয়েছি।

আরএ

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত