ঢাকা, রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬ আপডেট : ৭ মিনিট আগে English

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৫৯

প্রিন্ট

নারায়ণগঞ্জে ২১ দিনে ১৯ মরদেহ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জে ২১ দিনে ১৯ মরদেহ উদ্ধার
রূপগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জে প্রতিদিনই কোথাও না কোথাও বিভিন্ন ঘটনায় মরদেহ উদ্ধার করছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এ নিয়ে আতঙ্কে আছে নারায়ণগঞ্জবাসী। দিন দিন লাশের সংখ্যা বেড়েই চলছে। আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতির উন্নতির মানদণ্ড দেখানো হলেও হত্যাকাণ্ড, সড়ক দুর্ঘটনাসহ নানা ঘটনায় মরদেহের শহরে পরিণত হচ্ছে নারায়য়ণগঞ্জ।

সম্প্রতি এই সকল ঘটনার সাথে সাথে ট্রিপল মার্ডারের ঘটনায় জেলার জনমানুষের মাঝে বেড়েছে আতঙ্ক। চলতি মাসের ২১ দিনেই মরদেহের সংখ্যা ১৯ টি। এর মধ্যে ৫টি হত্যাকাণ্ড ঘটনা ঘটেছে, ৪টি সড়ক দুর্ঘটনা, ৩টি বিদ্যুৎস্পৃষ্টের ঘটনাসহ অন্যান্য ঘটনায় ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

পত্রিকা ও বিভিন্ন তথ্য অনুসারে, ২ সেপ্টেম্বর রূপগঞ্জে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে রাজু পাটোয়ারি (২৮) ট্রাকের এক সহযোগী (হেলপার) নিহত হয়েছেন।

ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ সড়কে সদর উপজেলার গোগনগর এলাকায় একটি সিমেন্টবাহী ট্রাকচাপায় জামাল হোসেন নামে এক অটোরিকশা চালক নিহত ও একজন যাত্রী আহত হয়েছেন। ৯ সেপ্টেম্বর সকালে সাড়ে ছয়টায় সড়কের মন্ডলবাড়ি সেতুর সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

৪ সেপ্টেম্বর রূপগঞ্জের ভুলতার হাটাবো দক্ষিণপাড়া এলাকায় সানজিদা আক্তার (৮) নামে তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরিবারের দাবি, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে শিশুটিকে হত্যা করে মরদেহ ঝুলিয়ে রাখা হয়। এ ঘটনায় আয়নাল হোসেন নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

৫ সেপ্টেম্বর রূপগঞ্জের পূর্বাচল উপ-শহরের ১ নং সেক্টরের ভোলানাথপুর এলাকা থেকে ২৫ বছরের এক অজ্ঞাত তরুণীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এই ঘটনায় পুলিশ প্রাথমিক ধারণা, বুধবার রাতের কোন এক সময় দুর্বৃত্তরা ওই তরুণীর গলা কেটে হত্যার পর মরদেহ কাশফুলের ঝোপে ফেলে যায়।

ওইদিন দুপুরে আড়াইহাজারে নজরুল ইসলাম (৩০) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহীর মরদেহ উদ্ধার করে সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর হাইওয়ে থানার পুলিশ। ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পুরিন্দা ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। তবে কিভাবে তার মৃত্যু হয়েছে পুলিশ বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি। নিহতের শরীরে কিছু জখমের চিহ্ন দেখে ধারণা করে সড়ক দুর্ঘটনায় তার মৃত্যু হয়েছে।

৭ সেপ্টেম্বর ফতুল্লার দেলপাড়া এলাকায় ট্রাক চাপায় আরাফত হোসেন (১৪) নামে এক স্কুল ছাত্র নিহত হয়। স্কুল শেষে বাড়ি ফেরার পথে অজ্ঞাত ট্রাক আরাফাতকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়।

৯ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজারে ইভা আক্তার (২৫) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করলেও কিভাবে তার মৃত্যু হয়েছে তা সঠিকভাবে জানাতে পারেন নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের (আরএমও) ডা. আশাফুল আমিন বলেন, হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। তার গলায় একটি কালো চিহ্ন রয়েছে।

১০ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে জাকির হোসেন (২৫) নামে এক কাঁঠমিস্ত্রী ও ১১ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজারে মেঘনার পানিতে ডুবে সাইমা (৪) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

একইদিনে রূপগঞ্জে দুর্ঘটনায় দুটি মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। রূপগঞ্জে উপজেলার ইছাখালী এলাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তফিকুল ইসলাম সুমন (৩৫) নামে একটি ডকইয়ার্ড শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

রূপগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ফয়সাল আহমেদ জানান, বুধবার রাতে তফিকুল ইসলাম সুমন ডকইয়ার্ড কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়।

উপজেলার কাজীপাড়া সংলগ্ন শীতলক্ষ্যা নদীতে জাহাজের পাখায় জড়িয়ে সজীব (২২) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

১৪ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজার পৌরসভার নোয়াপাড়া এলাকায় বাথরুমে রাখা পানি ভর্তি বালতিতে পড়ে ছয় মাস বয়সী আল-আমিন নামক শিশুর মৃত্যু হয়।

১৮ সেপ্টেম্বর সদর উপজেলার সৈয়দপুর এলাকায় র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে তুহিন ওরফে চাপাতি তুহিন নামের এক যুবক নিহত হয়।

১৯ সেপ্টেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জে সিআইখোলা এলাকায় পারিবারিক কলহের জের ধরে একটি ফ্ল্যাটে মা ও দুই কন্যা শিশুকে গলাকেটে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। নিহতরা হলেন - সিদ্ধিরগঞ্জের সিআইখোলা এলাকার বাসিন্দা সুমনের স্ত্রী নাজমিন (২৮), দুই মেয়ে নুসরাত (৮) ও খাদিজা (২)। নিহত নাজমিনের বোনের স্বামী আব্বাস এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

সেদিন বিকালেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জের পাওয়ার হাউজের নিকটবর্তী কমিউনিটি সেন্টার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।

একইদিন বিকালে শীতলক্ষ্যা নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ স্কুল ছাত্র তোয়াসিম আরাফাতের (১০) মরদেহ উদ্ধার করে মন্ডলপাড়া ফায়ার সার্ভিসের একদল ডুবুরি। এর আগের দিন দুপুর থেকে সে নিখোঁজ ছিল।

দুপুরের দিকে ফয়েজ আহম্মেদ মৃধা (৩০) নামের এক দূর সম্পর্কের মামার সাথে টানবাজার স্কুল ঘাট সংলগ্ন নদীতে গোসল করতে গেলে তোয়াশিন নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় শিশুটির দূর সম্পর্কের মামা ফয়েজ আহম্মেদ মৃধাকে আটক করেছে পুলিশ।

২০ সেপ্টেম্বর বন্দরে টাকা দেনা পাওনা নিয়ে বিরোধের জের ধরে খোকন (৩৫) নামে এক বালু ব্যবসায়ীর বস্তাবন্দী মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দুপুরে বন্দর থানার চাপাতলী পিঠাউলনির ব্রিজের নিচ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আল আমিন নামক একজনকে আটক করা হয় এবং পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে স্বীকার করে।

২১ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজারে সোলার লাইট স্থাপন করতে গিয়ে সুমন মিয়া (২৫) নামে এক যুবকের বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো দুইজন।

তারা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছে। সুমন মিয়া উপজেলার কান্দারপাড়া গ্রামের মৃত সাদু মিয়ার ছেলে।

বাংলাদেশ জার্নাল/জেডআই

  • সর্বশেষ
  • পঠিত
  • আলোচিত